ভাং-এর নেশা করিয়ে রুদ্রর পেট থেকে সব সত্যি বের করে দিল ফুলকি! সব জানতে পেরে প্রচন্ড রেগে গেল রোহিত।!

এই দোল উৎসবের মহালগ্নেই আসল দোষীদের পর্দা ফাঁস করতে চলেছে জি বাংলার (Zee Bangla) ‘ফুলকি’ (Phulki) ধারাবাহিকের নায়িকা। এই নবাগত নায়িকার অভিনয় অল্প কিছুদিনের মধ্যেই সবার মনে জায়গা করে নিয়েছে। একটু একটু করে সাফল্যতার শীর্ষে পৌঁছেছে এই ধারাবাহিক। বর্তমানে টিআরপি তালিকার একদম প্রথমে অর্থাৎ বেঙ্গল টপার এর স্থান দখল করেছে এই মেগা।

বর্তমানে এই ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী, দোল উৎসব পালন করার জন্য অনেক পরিকল্পনা করেছে মাস্টারমশাই। আবির রং সব কিছু মিলিয়ে মিশিয়ে গোটা পরিবেশটাই রঙিন হয়ে উঠেছে। একে একে উপস্থিত হয়েছে ফুলকি সহ তার গোটা দল। অন্যদিকে এসেছে রুদ্র লাবু রিকি। এর মাঝেই এক বড়োসড় কান্ড ঘটানোর পরিকল্পনা করে ফেলেছে ফুলকি। এবার খুব তাড়াতাড়ি রুদ্রর মুখোস সবার সামনে খুলে দেবে সে।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, চারিদিকে এত আয়োজন দেখেও ফুলকির মন ভালো হতে চাইছে না। কারণ সে যেভাবে এই দোল উৎসব পালন করে এসেছে সেখানে গান বাজনা খাবার দাবার জল কাদা এসব কিছু ভরপুর ছিল। তাই এখানকার দোল খেলা তার কাছে একটু শুকনো শুকনো মনে হচ্ছে। অনেকক্ষণ ধরেই তার মন খারাপ লক্ষ্য করেছে রহিত। এরপর মাস্টারমশাই আর রোহিত দুজন মিলে ফুলকিকে জিজ্ঞাসা করে তার ঠিক কি হয়েছে। তখন ফুলকি নিজের চাহিদাগুলো মাস্টারমশাইকে খুলে বলে আর তিনিও সঙ্গে সঙ্গে গান-বাজনার ব্যবস্থা করে ফেলেন।

এদিকে নিজের চুল খুলে এসেছে পারমিতা। তার দিক থেকে চোখ সরাতে পারছে না অংশুমান। এই বিষয়টা তাদের সামনে হাসতে হাসতে বলে ফেলে ফুলকি যাতে বেশ লজ্জা পেয়ে যায় পারমিতা। দূর থেকে এসব দেখতে থাকে রুদ্রর বোন। সে পারমিতাকে ভীষণ হিংসা করে কারণ অংশুমানকে মনে মনে পছন্দ করে রিকি। এরপর সেখানে আনা হয় শরবত অর্থাৎ ভাং। যেটা দেখে খুব খুশি হয়ে যায় ফুলকি কিন্তু রোহিত থাকে সেসব খেতে বারণ করে। যদিও রুদ্র এসে রোহিতকে বলে আজকের জন্য এই সমস্ত শাসন থেকে ফুলকিকে মুক্তি দেওয়া উচিত।

আরও পড়ুন: অবশেষে বেরিয়ে এলো নীলুর আসল রূপ, সহ্য করতে না পেরে নিলুকে ঘর থেকে তাড়িয়ে দিল সৌর্য! বন্ধুত্ব হলো সার্থক স্রোতের! 

এদিকে একটা ধামাকা করার পরিকল্পনা করছে ফুলকি যার জন্য ভোম্বলকে ফোন করে ডেকে পাঠিয়েছে সে। এদিকে অনেকক্ষণ ধরে রোহিতের সঙ্গে কথাবার্তা বলছে রুদ্র। যেটা দেখে বেশ ভয় পেয়ে যায় ফুলকি। কারণ রুদ্র কখনোই তাদের ভালো চায়নি। আর অন্যদিকে রিকি অংশুমানকে বারবার ভাং খাওয়ার জন্য জোর করতে থাকে। যেটা একেবারেই পছন্দ হয় না তার। মনে মনে সবকটা শয়তানকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা করে ফেলে সে।

Back to top button