ডিভোর্স আটকাতে নতুন প্ল্যান করলো রোহিত, রুদ্রর মুখোশ সবার সামনে টেনে খুলে দিল লাবু!

শুরু থেকেই জমজমাট জি বাংলার (Zee Bangla) ‘ফুলকি’ (Phulki)। এই ধারাবাহিকের নায়িকাকে ভীষণ পছন্দ করেন দর্শক মহল। নায়িকার সাবলীল অভিনয় এবং সৌন্দর্য মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। একদম প্রথম দিন থেকেই টিআরপিতে এই ধারাবাহিকের স্থান এক থেকে পাঁচের মধ্যে অবস্থান করে।

বর্তমানে এই ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী, ফুলকি রোহিতকে ডিভোর্স দেওয়ার জন্য পাগল হয়ে গিয়েছে। সে বুঝে গিয়েছে তার স্যার ভীষণ দোটানার মধ্যে দিয়ে জীবন কাটাচ্ছে। কোনো একটা দিক তাকে বেছে নিতে গিয়ে অনেক চাপে পরে গিয়েছে সে। তাই ফুলকি আর তার স্যার এর সমস্যা বৃদ্ধি করতে চায় না। কিন্তু রোহিত যে এই ডিভোর্স দিতে চায়না কারণ সে এতদিন ফুলকিকে ভালবেসে ফেলেছে।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, ফুলকিকে নিয়ে ঘুরতে থাকে রোহিত। বার বার চেষ্টা করেও কিছুতেই আসল কথা গুলো বলার সুযোগ পায় না সে। এর মাঝেই ফুচকা খাওয়ার কথা বলে ফুলকি। সেখানে ফুচকা ওয়ালা সেজে দাঁড়িয়ে থাকে পিয়াল। সে ফুলকিকে মনে করিয়ে দেয় সে তাকে শক্ত থাকতে হবে।

আরও পড়ুন- নায়িকা হয়ে অন্যরকম জন্মদিন পালন! কেকের বদলে কী খেয়ে জন্মদিন পালন করলেন মিঠাইরাণী?

এরপর খুব ঝাল লাগে হওয়াই মিঠাই খেতে চলে যায় সে। সেখানে বিক্রেতা সেজে দাঁড়িয়ে থাকে তমাল। রোহিত ফুলকিকে বেশি মিষ্টি খেতে বারণ করে। ফুলকি যখনই খেতে শুরু করে ওমনি তমাল বলে একেবারেই যেনো সে নিজের মত না বদলায়। সবাই এখানে ছদ্ম বেশে তাদের পিছু পিছু চলে এসেছে দেখে ভীষণ অবাক হয়ে যায় ফুলকি। ঠিক তখনই রোহিত কলে, ডিভোর্সের কেসটা তুলে নিতে। কিন্তু ফুলকি তখনই না করে দেয়। রোহিতের প্ল্যান কাজে লাগে না।

এদিকে লাবুকে রুদ্র জিজ্ঞেস করে, ফুলকি রোহিতের নাকি ডিভোর্স হয়ে যাচ্ছে? লাবু তথ্য বলে, সে এই বিষয় কিছুই জানে না। শুনেই মাথা গরম হয়ে যায় রুদ্রর। সে লাবুর হাত চেপে ধরে। লাবু তখন বলে, বাড়াবাড়ি করলে রুদ্রর মুখোশ খুলে দেবে সে। অন্য দিকে রোহিত জানতে পারে ওখানে সবাই লুকিয়ে ছিল। সে ধানুকে টেনে নিয়ে গিয়ে আলাদা করে জিজ্ঞেস করে, এসব কেনো করছে সে? ধানু বলে, ডিভোর্স আটকাতে চাইলে ফুলকিকে ভালোবাসার কথা জানতে হবে। এতক্ষণে সবার আসল মতলব বুঝতে পারে রোহিত। সেকি শুনবে ধানুর কথা?

Back to top button