বসের বাড়িতে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলো রাই, সে না আসায় নিজেই তার বাড়িতে হাজির হলো অনির্বাণ!

Mithijhora Today Episode: কথা দিয়ে কথা রাখতে না পারলে মানুষ অনেক ছোট হয়ে যায় অপর মানুষটির কাছে। জি বাংলার (Zee Bangla) মিঠিঝোড়া (Mithi Jhora) ধারাবাহিকে ঠিক একই অবস্থা হলো নায়িকা রাইয়ের। দিন দিন ধারাবাহিকের প্রতিটি পর্ব এত বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে যে, ভক্তদের ধারণা আর কিছুদিনের মধ্যেই টিআরপি তালিকার প্রথম পাঁচে ঢুকে পড়বে এই মেগা।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী, রবিবার অনির্বাণের বাড়িতে যাওয়ার কথা ছিল রাইয়ের। সে বেশ দোটানার মধ্যে ছিল। সে বুঝতে পারছিল না তার এভাবে বসের বাড়িতে গিয়ে রান্না করে খাওয়া দাওয়া করাটা ঠিক কথাটা শোভনীয় হবে। এর মাঝেই বাড়িতে চলে আসে নিলু। তার এটা ওটা আবদার রাখতে গিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে রাই। তাকে অনেকবার তার বৌদি আর স্রোত যেতে বললেও রায় কিছুতেই বুঝে উঠতে পারে না সে কিভাবে বেরোবে।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, অনির্বাণ সমস্ত বাজার করে অনেক আশা নিয়ে রাইয়ের জন্য অপেক্ষা করে বসে থাকে। সে ভাবতে থাকে রাই আসলে ঠিক কিভাবে নিজের মনের কথাগুলো রাইয়কে খুলে বলবে সে। কিন্তু অনেকক্ষণ হয়ে গেলেও রাই এর কোন পাত্তা পাওয়া যায় না। কিছুক্ষণ বাদে অনির্বাণ এর ফোনে একটা মেসেজ আসে। আর সেই মেসেজটা করে রাই। কে জানায় পারিবারিক কারণে সে আজকে আসতে পারছে না। তার স্যার যেন তাকে ক্ষমা করে। এটা শুনে অনির্বাণ মনে মনে ভাবে, তার সমস্ত মান সম্মান মাটিতে মিশে গেল। তার অফিসের একজন কর্মচারী তাকে মুখের ওপর প্রত্যাখ্যান করল।

এদিকে রাই সমস্ত রান্নাবান্না করে খাবার টেবিলে সবটা সাজিয়ে দেয়। তখন নিলু বলে ওঠে, “তোর যেন কোথায় যাওয়ার কথা ছিল কই গেলি না তো? কোথায় নেমন্তন্ন ছিল তোর? বসের বাড়ি? যখন নেমন্তন্ন ছিল তখন গেলি না কেন?” রাই বলে, তার নেমন্তন্ন ছিল ঠিকই কিন্তু তার বোন এসেছে বলে সে সেটা বাতিল করে দেয়। এরপর রাইতে এই নিয়ে নানারকম নোংরা ইঙ্গিতে প্রশ্ন করতে থাকে নিলু। তাকে সমর্থন জানায় তার দাদা। এইভাবে দুজন মিলে রাইয়ের খাটাখাটনির দাম না দিয়ে উল্টে তাকে অপমান করতে থাকে। ঠিক সেই সময় রাইয়ের বৌদি বলে ওঠে, “তুমি ডাক্তার দেখিয়েছো? এই সময় কিন্তু ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়াটা খুব জরুরী।” আবার সেই একই কথা ওটাই নিলু এবার চুপ হয়ে যায়।

আরো পড়ুন: সারেগামাপার সঞ্চালনা থেকে যিশুর পর বাদ পড়লো আবিরও! এবার সঞ্চালনার দায়িত্বে থাকবেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য!

এদিকে স্রোত নিজের দিদির অপমান সহ্য করতে না পেরে প্রত্যেককেই অনেক কথা শুনিয়ে দেয়। রাই নিজে যেতে না পারলেও অনির্বাণের জন্য বেশ কিছু রান্না করা খাবার প্যাক করে পাঠিয়ে দেয়। অনির্বাণ এর কাছে সেগুলো গিয়ে পৌঁছলে অনির্বাণ সেসব নিতে চায় না। ডেলিভারি করতে আসা লোকটিকে সে আরো ৫০০ টাকা দেয় আর বলে খাবারগুলো যেন রাইয়ের বাড়িতেই ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয়। রাই মনে মনে ভাবতে থাকে খাবার গুলো কেয়ে হয়তো অনেক প্রশংসা করবে অনির্বাণ কিন্তু সে জানে না তার রান্না করা খাবার গুলো তার কাছেই ফেরত পাঠিয়ে দিচ্ছে তার বস।

Back to top button