ইশার সাথে হাত মিলিয়েছে রনি জেনে গেল পর্ণা, রাতের মধ্যেই তরঙ্গ রহস্যর কিনারা করবে দত্তবাড়ি!

একেবারেই টানটান উত্তেজনাময় পর্ব চলছে জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ধারাবাহিকে। বহুদিন ধরে কেবল সমস্যার মধ্যে জড়িয়ে পড়ছিল দত্তবাড়ি। কোথাও কোনো আশার আলো দেখতে পাচ্ছিল না তারা। তবে এইবার একটু একটু করে আবার নিজের জাদু দেখাতে শুরু করেছে তারা। আবার আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে ধারাবাহিকের গল্প। দর্শকদের সমস্ত অভিযোগ মুছে ফেলে ফের নতুন চমক আনল নিম ফুলের মধু।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা বহুদিন ধরে জানার চেষ্টা করছিল তাদের সাথে এত খারাপ কে ঘটাচ্ছে। একটার পর একটা ঘটনা ঘটেই চলেছে তাদের পরিবারে। যত অমঙ্গল হওয়া সম্ভব ছিল সব হয়ে গিয়েছে একে একে। আর একটু এদিক থেকে ওদিক হলেই পথে বসবে তারা। তবে ততদিন অবধি তো পায়ের উপর পা তুলে অপেক্ষা করা চলবে না, তার আগেই এমন কিছু একটা করতে হবে যাতে শত্রুর সমস্ত জারি জুড়ি শেষ হয়। আর এবার সেটা করতেই উঠে পড়ে লেগেছে পর্ণা।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, সৃজন আর পর্ণা দুজন মিলে ইশার পিছু নিয়ে পৌঁছে গিয়েছে পুলিশ স্টেশনে। সেখানে গিয়ে রেজিস্টার চেক করে তারা জানতে পারে, রনির সাথে দেখা করতে এসেছে ইশা। এটা দেখেই দুয়ে দুয়ে চার করে ফেলে পর্ণা। তবে সেখানেই থেমে থাকেনি তারা। তৎক্ষণাৎ ইশার পিছু নিয়ে একটা চায়ের দোকান অবধি পৌঁছয় তারা। সেখানেই রনির দুজন পোষা লোকের সাথে দেখা করে সে। ইশা তাদেরকে বলে, “দত্ত বাড়িতে কে আসছে কখন আসছে সব খবর আমার চাই। কোন কোন গেস্ট আসছে তাদের ঠিকুজি কুষ্টি সব বের করো।” সবটাই আড়াল থেকে শুনে ফেলে পর্ণা আর সৃজন।

তারপর সবটা জলের মতন পরিষ্কার হয়ে যায় তাদের কাছে। পর্ণার ছবি বিকৃত করা থেকে শুরু করে শাড়ির গোডাউনে আগুন লাগানো জেঠুর দোকানে মশলায় কেমিক্যাল মেশানো সবটাই তাদের কারসাজি। তারমানে পর্ণার ধারনাই ঠিক বলে প্রমাণিত হয়। পাশাপাশি তারা এটাও বুঝতে পারে, তরঙ্গ দত্ত কোনোভাবেই ইশার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়। তার মানে তাদের অন্য কোন মতলব রয়েছে যেটা সুবিধের নয়। এবার সেটাই বের করতে হবে দত্ত পরিবারকে।

আরো পড়ুন: জগদ্ধাত্রীর ওপর রেগে গেল কৌশিকী! আসল সত্যিটা বলে দিল তুষার তীর্থ তলাপাত্র!

তাদের নতুন গেস্ট তরঙ্গ দত্তের ঘরে ঢোকার জন্য একটা প্ল্যান করে ফেলে পর্ণা। আর রুচিরা হাউসকিপিং এর লোক সেজে ঘরে ঢোকার কথা ভাবে। কিন্তু এসব করে বিশেষ লাভ না হওয়ায় শেষে পেস্ট কন্ট্রোলের লোক হিসেবে জিনিয়া আর পিকলু ঘরে ঢোকে। কিন্তু তারা যে জিনিসপত্র সার্চ করেছে সেটা বুঝতে পেরে যায় তরঙ্গ দত্ত। তাই এবার নতুন প্ল্যান করতে থাকে সে। অন্যদিকে তরঙ্গ দত্তের লাগেজ থেকে নকল চুল পাওয়া গেছে দেখে সন্দেহ আরো গাঢ় হয় পর্ণার মনে। ওই রাতটা জেগে গোটা বিষয়টা তদন্ত করার সিদ্ধান্ত নেয় তারা।

Back to top button