রাই অনির্বাণের কথা দরজার আড়াল থেকে শুনে নতুন অ’শা’ন্তি শুরু করলো নীলু! আবার নতুন বি’প’দ রাইয়ের জীবনে!

জি বাংলার (Zee Bangla) পর্দায় শুরু হয়েছে একেবারে ভিন্ন স্বাদের একটি বাংলা সিরিয়াল (Bengali Serial) ‘মিঠিঝোড়া’ (Mithijhora)। একজন-দুজন নয় এই ধারাবাহিকে রয়েছেন মোট তিন জন নায়িকা।রাই (Rai)-নীলু-আর স্রোত এই তিন বোনের কাহিনী নিয়েই এগিয়ে চলেছে এই ধারাবাহিকের গল্প। তবে শুরুর দিকে ধারাবাহিকের গল্প নিয়ে দর্শকমহলে ব্যাপক কৌতূহল তৈরি হলেও সময়ের সাথে সাথে এই ধারাবাহিকের কাহিনী দেখে এখন রীতিমতো বিরক্ত সকলেই।যার প্রভাব পড়ছে টিআরপি স্কোরেও। ইদানিং এই সিরিয়ালের টিআরপি একেবারে তলানিতে ঠেকেছে। এই ধারাবাহিকের রাইয়ের সাথে শৌর্যের জুটিটাকেই ভালোবেসে এসেছেন দর্শক। কিন্তু এক রাতেই সব ওলোট পালট হয়ে যায়।

ধারাবাহিক এর শুরুতে দেখানো হয়েছে বিয়ের রাতেই রাইয়ের বাবার মৃত্যু হওয়ায় পরিস্থিতির চাপে রাই বাধ্য হয়ে শৌর্যের সাথে মেজ বোন নীলুর বিয়ে দিয়ে দেয়। যদিও নীলুর সাথে বিয়ের পরেও রাইয়ের প্রতি শৌর্যের টান দেখে দর্শকরা আশা করেছিলেন শেষ পর্যন্ত রাইয়ের সাথেই শৌর্যের মিল হবে।

সাম্প্রতিক কালে দেখা যাচ্ছে নীলু হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে কিন্তু তার জ্ঞান ফিরতেই নীলু তার দিদি রাই কে খুঁজতে থাকে ও তাকে নির্লজ্জ বেহায়া বলে দূর দূর করে তারিয়ে দেয় রাইয়ের মুখ দেখাও পাপ এটা বললে শৌর্য তাকে বলে নীলুর এই আচরণের জন্য ইদানিং কালে তাদের সম্পর্ক খারাপ হচ্ছে।

তার উত্তরে নীলু শৌর্য কে বলে সে শুধু মাত্র রাই কে শৌর্য মন থেকে মুছে ফেলার জন্য মিথ্যা বলেছে কারণ সে ভাবছে শৌর্য এখনও রাই কেই ভালোবাসে। এবং শৌর্য এটাও বলেছে যে সে নীলু কে আর দেখতে চায় না তাই নীলু কাছে এখন মরা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

নীলুর কথা শুনে রাই এর মা রাই কে অপমান করে ও নীলু কেনো রাই এর জীবন নষ্ট করতে যাবে এই মন্তব্য করে। কিন্তু নীলু তাকে থামিয়ে দিয়ে বলে নীলু রাই এর জায়গাটা নিয়ে শৌর্য জীবন নষ্ট করে দিয়েছে। কিন্তু রাই তাদের কথা কোনো রকম বিরূপ প্রকাশ না করে তার বোন কে বোঝায় কেনো সে নিজের জায়গা ছেড়ে দিচ্ছে কেনো সে নিজে কে শৌর্য যোগ্য করে তুলছে না বরং মিথ্যা আশ্রয় করে নীলু ও শৌর্যর সম্পর্ক খারাপ করছে।

আরো পড়ুন: মিস্টার এক্সের ব’ন্দু’কের ডগায় পিকলু! বি’প’দ থেকে বাঁচতে ড্রা’গ’সে জল ঢেলে দিলো সৃজন! রাগের বসে ফ্যাসাদে এক্স!

রাই আরো বলে সে কোনো ভেবেই চায় না তার ছোটো বোন এর সম্পর্ক চির ধরিয়ে নিজে ভালোথাকবে। রাই আরো স্পষ্ট করে জানিয়ে দায় সে ভাল আছে তার জীবনে। শৌর্য এর মা নীলুর এই রূপ আচরণ দেখে তাকে তাদের বাড়িতে জায়গা হবে না বললে নীলু আরো বলে উঠে হ্যাঁ তারা এটাই চায় যে নীলু বাড়ি ছেড়ে চলে যাক আর রাই শৌর্য এর বউ হয়ে উঠুক। এর প্রতি উত্তরে শৌর্য রেগে গিয়ে তার মা কে বলে আগে সবাই নীলুর কথা ভাবুক তার পর শৌর্য কি করবে সেটা ভাববে কারণ সে নিজের কথা ভাবতে জানে। এবার এটাই দেখার বিষয় নীলু কি পারবে শৌর্য এর যোগ্য হয়ে উঠে দাঁড়াতে?

Back to top button