‘হয় তুই না হয় নীল কেউ একজন মরবি আমার হাতে’ মেঘ নীলের এক হওয়ার আগে খুনের চক্রান্ত শুরু ময়ূরীর! তবে কি সর্বনাশ দিয়েই শেষ হবে সবকিছু?

বর্তমানে বাংলা টেলিভিশনে (Bengali television) একের পর এক আসছে নতুন ধারাবাহিক, যার ফলে ফিকে হচ্ছে কিছু পুরনো ধারাবাহিকের জৌলস। তবে সে সকল পুরনো ধারাবাহিক গুলির মধ্যে এমন কিছু ধারাবাহিক রয়েছে যেগুলি টিআরপি তালিকা সেই ভাবে ফলাফল ভালো না করতে পারলেও দর্শকদের মধ্যে দারুন ভাবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। আর তেমনি একটি ধারাবাহিক হল জি বাংলার (Zee Bangla) ইচ্ছে পুতুল (Icche Putul)

এই ধারাবাহিকের মূল গল্প গড়ে উঠেছে দুই বোন এবং তাদের মনের মানুষকে নিয়ে। ঘটনাচক্রে দুই বোন একই মানুষকে ভালোবেসে ফেলে। কিন্তু নীল অর্থাৎ ধারাবাহিকের নায়ক কিছুতেই ময়ূরীকে নিজের মনের মানুষ ভাবতে পারেনা সে মেঘকে ভালোবাসে। তারপর নীল এবং মেঘ ময়ূরীর বাবা অর্থাৎ অনিন্দ্য মিলে মেঘের সাথেই নীলের বিয়ে দেয়। তারপর থেকেই শুরু হয় ময়ূরীর প্রতিশোধের আগুন। সে নিজের বোনকে কিছুতেই সুখী হতে দেয় না।

বর্তমানে ধারাবাহিকের গল্প অনুসারে দেখা যাচ্ছে যে মেঘ নীল দুজনেই আলাদা হয়ে গেছে। কিন্তু তারা নিজেদের মন থেকে একে অপরকে বের করতে পারেনি। তাই দুজনের পরিবারের শত চেষ্টা করা সত্ত্বেও তারা জীবনে এগিয়ে যায়নি। পরিবারের সকল সদস্যদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখা সত্বেও তারা একে অপরের জীবনে অন্যদিকে এগিয়ে গেলেও নতুন সম্পর্ককে কোনভাবে জায়গা দেয়নি।

ধারাবাহিকের এই দিনের পর্বে দেখা যায় প্রথমেই অনিন্দ্য এবং মধুমিতাকে নীলের ঠাম্মি ডেকে পাঠিয়েছে বলে তারা বাড়িতেই কথা বলতে শুরু করে। অনিন্দ্য মধুমিতাকে বলে যে তার কোনভাবেই ওদের বাড়িতে যাওয়ার ইচ্ছা নেই, আর সেই মুহূর্তেই ঘরে ঢুকে পড়ে মেঘ। তার বাবা মার কথা শুনে সে কিছু একটা সন্দেহ করলেও, এটা ভেবে উঠতে পারে না যে নীলের বাড়িতে যাওয়ার প্ল্যান চলছে, তার বাবা-মায়ের। উল্টো দিকে মধুমিতা মেয়েকে চাপ দিতে থাকে তার বন্ধুর ছেলের সাথে কথা বলার জন্য।

আরও পড়ুনঃ জল খাবারের অভাবে আধমরা রোহিত ফুলকি, বাড়ির মধ্যে ঢুকতে গিয়ে ভেঙে পড়লো দেওয়াল, শেষ চেষ্টাও ব্যর্থ রেসকিউ টিমের!

এরপরই দেখা যায় মেঘের মনে সন্দেহ সৃষ্টি হয় আর সেই সময় ময়ূরী ঘরে ঢুকে এবং মেঘকে বলে যে সে কি আবার নীলের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করার চেষ্টা করছে? নানারকম প্রশ্ন করে সে মেঘের কাছ থেকে কথা বার করবার চেষ্টা করে। শেষে ময়ূরী বলে যে এবার যদি কোন ভাবে মেঘ এবং নীল আবার সম্পর্কে জড়ায় তাহলে তাদের দুজনের মধ্যে কেউ একজন তার হাতে মারা পড়বে। মনে মনে তার এই ভাবনা ভাবা আবার একবার ভক্তদের মনে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করেছে। এরপরে দেখা যায় মেঘ অনিন্দ্যকে বোঝাতে থাকে যে সে এই মুহূর্তে বিয়ে করতে চায় না তার নিজের জীবনে সে ভালো আছে। বাবা মেয়ের কথোপকথন দিয়েই শেষ হয় সম্প্রতি পর্ব।

Back to top button