লুকোচুরি শেষ, মশলার দোকানে পা রাখতেই ইশাকে হাতেনাতে ধরলো পর্ণা!

প্রতিটি মানুষকে তার জীবনে খারাপ এবং ভালো দুই রকম সময়ের মধ্যে দিয়েই যেতে হয়। জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Phuler Modhu) ধারাবাহিকের নায়ক এবং নায়িকার জীবনে বর্তমানে চলছে এক চরম দুঃসময়। তারা যতবার উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে ঠিক ততবার পিছন থেকে এক দমকা হাওয়া এসে তাদের সাজানো সমস্ত কিছুকে তছনছ করে দিচ্ছে। কিন্তু এত কিছুর পরেও মনের জোর হারায়নি নায়িকা পর্ণা। সে আগের তুলনায় অনেক বেশি সাবধানি হয়েছে। আর কোনো রকম অনিষ্ট হতে না দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছে সে।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা এবং সৃজনের সাধের শাড়ির কথাকে ধুলোয় মিশিয়ে দিয়েছে ইশা এবং এই কাজে তাকে সাহায্য করেছে দত্ত বাড়ির ঘর শত্রু বিভীষণ অয়ন এবং তার স্ত্রী মৌমিতা। পর্ণা ইশার দিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে আসে যে এইবার তাকে উচিত শিক্ষা দেবে সে। আর কোনোভাবেই ছাড়া পাবে না ইশা। কিন্তু যত দিন যেতে থাকে বেকারত্ব ঘিরে ধরে সৃজনকে, যার ফলে ধীরে ধীরে ডিপ্রেশনে চলে যায় সৃজন।

পর্ণা বুঝতে পারছিল যেটা চলছে সেটা যদি আরো কিছুদিন চলে তাহলে সৃজন মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়বে আর এটা সে বেঁচে থাকতে দেখতে পারবেনা। তাই পর্ণা নিজে সৃজনের জেঠু অখিলেশের কাছে তাদের মসলার দোকানে সৃজনকে পার্টনার বানানোর অনুরোধ করে। এমন বিপদে সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়নি জেঠু, বরং সাদরে গ্রহণ করে নেন তিনি। তার পর থেকে একটু হলেও শান্তিতে রয়েছে সৃজন।

এই দিনের পর্বে দেখা যায় জেঠুর দোকানে গিয়ে সমস্ত কিছু ভালোভাবে বুঝে নিচ্ছে সৃজন। দোকানে যখন সৃজন ছাড়া আর কেউ নেই, তখন ছদ্মবেশে সেখানে যায় পর্ণা। সে সৃজনের থেকে একটা জিরের গুড়োর প্যাকেট চাইলে সৃজন তাকে ধনে গুড়োর প্যাকেট এনে দেয়। সেই দেখে পর্ণা সৃজনকে বলে এমন ভাবে চালালে ব্যবসা তো লাটে উঠবে। এরপর হাসতে হাসতে নিজের ঘোমটা টা তোলে। পর্ণার রসিকতা দেখে ভারী লজ্জায় পরে সৃজন।

আরও পড়ুন: “আমি নিজের ছায়াকেও বিশ্বাস করি না, কিন্তু তোকে করলাম”- পর্ণার অনুরোধে জেঠুর পার্টনার সৃজন, জ্বলে পুড়ে গেল অয়ন মৌমিতা

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, সৃজন তার জেঠুর মসলার দোকান বন্ধ করে যখন বাড়ি ফিরতে যায় তখনই পকেটমারি হয় তার সাথে। মানি পার্সের মধ্যেই সে দোকানের চাবিটা রেখেছিল। সেই চাবিটা চুরি করে ইশা। বাড়ি গিয়ে সবটা খুলে বলতেই পর্ণা বলে দোকানের তালাটা বদলে দেওয়া হোক। ততক্ষণে এদিকে দোকানে পৌঁছে গিয়েছে ইশা এবং তার সঙ্গপাঙ্গ। আর অন্যদিকে তারা বদল করতে দোকানে আসছে পর্ণা সৃজন। তবে কি এবার একেবারে হাতেনাতে ইশাকে ধরবে ধারাবাহিকের নায়িকা? নাকি এইবারেও ফাঁক বুঝে পালিয়ে যাবে সে!

Back to top button