পর্ণা সৃজন ভিখারী সাজতেই বুঝে গেল বগা! নতুন করে বর্ষাকে দিয়ে টোপ ফেললো পুলিশ!

এই মুহূর্তে এক ভয়ংকর মিশনে সামিল হয়েছেজি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ধারাবাহিকের নায়িকা পর্ণা। শুরু থেকেই ধারাবাহিকটিকে মাতিয়ে রেখেছে সে। একটি সাদাসিধে ঘরোয়া গল্প নিয়ে শুরু হলেও যত দিন যাচ্ছে ধারাবাহিকের রহস্যের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর সেই রহস্য সমাধানে যা যা ঘটছে সেই সব কিছুকেই প্রাণ ভরে উপভোগ করছেন দর্শক মহল। ফলস্বরূপ টিআরপিও দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা আর সৃজন এবার এক নতুন কাজে নেমে পড়েছে। অখিলেশ দত্ত ও তার ছেলে এবং পুত্রবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে কারণ অনেক বড় অন্যায় করেছে তারা। কিন্তু এতে জেঠি খুবই অসুস্থ হয়ে পড়েছে তাই তাকে সুস্থ করতে অয়নকে প্রয়োজন। সেই জন্য এবার পর্ণা ও তার গোটা টিম নেমে পড়েছে অয়ন মৌমিতাকে খুঁজে বের করতে। সেটা করতে গিয়েই ভয়ংকর সত্যের মুখোমুখি হয়েছে তারা।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, কিভাবে ওই চক্রকে ধরা যায় সেটা ভেবেই চলেছে ধারাবাহিকের নায়িকা এবং পুলিশ। একটার পর একটা প্ল্যান বার করছে সে কিন্তু কোথাও গিয়ে একটানা একটা ফাঁক থেকেই যাচ্ছে। ঠিক তখনই পর্ণা জানতে পারে পুলিশেরই এক লোক ভিখারি সেজে খোঁজখবর চালাচ্ছে। তৎক্ষণাৎ একটা প্ল্যান চলে আসে তার মাথায়। সে ঠিক করে এবার নিজেরাই ভিখারি সেজে যাবে তারা। পুলিশ তাদের প্ল্যানে সম্মতি দিলে ভিখারি সেজে চলে যায় সৃজন আর পর্ণা।

আরো পড়ুন: নিজের প্রথম কেসে সফল ধানু! শালিনীর মৃত্যুর ভয় দেখাতেই ডিভোর্স দিতে রাজি হয়ে গেল রোহিত!

তারা অনেকক্ষণ ধরে রাস্তায় ঘুরে ঘুরে ভিক্ষা করে গান করে কিন্তু কোথাও বগার দেখা পাওয়া যায় না। বগার সাথে যে মহিলা ছিল সে পর্ণা আর সৃজনকে দেখে তাদের তুলে নেওয়ার কথা বললে বগা বলে, “ওদের দেখে ভিক্ষে করে বলে মনে হয়? আর তার উপর এত সুন্দর গান করছে। ওরা পুলিশের লোক হতে পারে তাই ওদেরকে এড়িয়ে চলতে হবে। সাবধান না হয়ে যদি একবার ধরা পড়ে যাই তাহলে এতদিনের সমস্ত কিছু নষ্ট হয়ে যাবে।” সারাদিন রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ও বগার দেখা পায় না তারা। এরপর জেঠির অসুস্থতার কথা শুনে তাড়াতাড়ি বাড়ি চলে যায় তারা। বাড়ি যেতেই কৃষ্ণা তাকে অপমান করতে শুরু করে আর বলে তাদের দেখে কোন দিক থেকেই ভিখারি বলে মনে হচ্ছে না।

এরপর আলাদা করে বর্ষা কথা বলে পর্ণার সাথে। সে বলে, “আমি এতদিন মায়ের কথার বিরোধিতা করেছি ঠিকই কিন্তু এই বারটা আর করতে পারছি না। সত্যি তোমাদের দেখে কোন দিক থেকেই ভিক্ষে করো বলে কেউ মনে হচ্ছে না। এর থেকে আমি যদি যাই তাহলে অনেক বেশি কাজ হবে কারণ আমি রোগা আছি।” কিন্তু কোনভাবেই বর্ষার প্রাণ ঝুঁকির মুখে ফেলতে চায় না পর্ণা। বর্ষা একপ্রকার জোড় করে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসে। এরপর সে ভিখারি সে যে ভিক্ষা করতে শুরু করে এবং গানও গায়। এইবারেও বগা দোনোমনো করলে তার সাথে থাকা মহিলাটি তাকে ভর্সা দেয় আর বলে একে দেখে মনে হয় না এ পুলিশের লোক। এরপর বগা একটু একটু করে বর্ষার দিকে এগোতে থাকে আর পুলিশ অপেক্ষা করে বগাকে ধরার।

Back to top button