অনিন্দিতাকে কোর্টে দেখে অবাক জ্যাস, কী লুকোতে চাইছে সে? জানতে নতুন ফাঁদ পাতলো জগদ্ধাত্রী!

একটা কেস শেষ হতে না হতেই নতুন জটের মধ্যে জড়িয়ে গিয়েছে জি বাংলার (Zee Bangla) জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri) ধারাবাহিকের নায়িকা। টিআরপি ধরে রাখতে ধারাবাহিকটি প্রত্যেকদিন একটু একটু করে আরো অনেক বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে। একটি গল্প অনেক দিন ধরে চললেও প্রত্যেকটা দিন নতুন নতুন রহস্য উদঘাটন করছে ধারাবাহিকের নায়িকা। প্রতিটি দর্শকের চর্চার এক বিরাট অংশ দখল করছে এই মেগা।

ধারাবাহিকের বর্তমান গল্প অনুযায়ী, একটি কেসের মীমাংসা ইতিমধ্যেই করতে সক্ষম হয়েছে জগদ্ধাত্রী। উৎসবকে তার প্রাপ্য শাস্তি দিতে যতদূর যেতে হয় ততদূর গিয়েছে সে। উৎসবকে ছাড়ানোর চেষ্টা যে ব্যর্থ হবে সেটাও সে বুঝিয়ে দিয়েছে রাজনাথকে। এর মাঝেই আরো একটা নতুন কেসের মধ্যে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছে জগদ্ধাত্রী।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, ভীষণ কান্নাকাটি করতে থাকে বৈদেহি মুখার্জী। সে রাজনাথকে বলে, কোনভাবেই কি সম্ভব নয় উৎসবকে ছাড়ানো? তখন রাজনাথ তাকে বলে, “কিভাবে উৎসবের শাস্তি আটকাবো আমি? উৎসব আজ এতবার বেড়েছে তার জন্য দায়ী তুমি বৈদেহি মুখার্জী। কলেজে থাকতে যখন ও মদ খেয়ে কিছু ছেলেকে পিটিয়েছিল তখনো তুমি ওকে সাপোর্ট করেছিলে কখনো শাসন করনি। তাই আজ ও এতবার বাড়তে পেরেছে।”

আরো পড়ুন: ডিভোর্স আটকাতে নতুন প্ল্যান করলো রোহিত, রুদ্রর মুখোশ সবার সামনে টেনে খুলে দিল লাবু!

বৈদেহি মুখার্জী প্রচন্ড কান্নাকাটি করতে থাকে আর বলতে থাকে, তার ছেলেটা কি আর একটা সুযোগ পাবে না? রাজনাথ বলে, সে চেষ্টা করবে, নিজের সবটা দিয়ে সে চেষ্টা করবে উৎসবকে জেলের বাইরে বের করে আনার। বৈদেহি মুখার্জী বলে উৎসবকে একমাত্র ছাড়াতে পারে কৌশিকী। এরপর সে কৌশিকীর এর কাছে গিয়ে বলে, তার ছেলেকে যেনো বার করে অনে সে। কৌশিকী তখন রাজনাথের সামনে বলে, “উৎসবের অন্যায়ের কোন ক্ষমা হয় না। তুমি কি জানো জেঠু মনি এই বৈদেহি মুখার্জী উর্মিলা মৈত্রকে চিনতো? শুধু তাই নয় তার দাদা উপলকেও চিনতো। তার মতন একজন অসুস্থ মানুষকে ব্যবহার করে, আমাকে গুলি করতে চেয়েছিল উৎসব। এত বড় একটা অপরাধ করার পর ওকে কোনো ভাবেই আমি ছেড়ে দিতে পারব না। আমার মেয়েটাকে অবধি রেহাই দেয়নি ও।” কথাগুলো শুনে আর কিছু বলার মুখ থাকেনা রাজনাথের।

এদিকে কোর্টে নিয়ে আসা হয়েছে উৎসবকে। জগদ্ধাত্রীকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় উৎসব। কিন্তু তাতেও বিন্দুমাত্র ভয় পায় না জগদ্ধাত্রী। ঠিক তখনই সেখানে অনিন্দিতাকে দেখে বেশ অবাক হয় জ্যাস। এখানে আসার কারণ কি সে কথা কিছুতেই বলতে চায় না অনিন্দিতা। জগদ্ধাত্রী তখন সাধুদাকে বলে, মা পাখি তার ডানা দিয়ে বাচ্চা পাখিকে রক্ষা করার চেষ্টা করছে। কিন্তু সেটা করতে দেওয়া যাবে না, যে অপরাধ করেছে তাকে সামনে আসতেই হবে।

Back to top button