অরুনাভর ভাড়া করা গুন্ডারা তারা করল তিস্তাকে, কেড়ে নিল ওড়না, সবার সামনে চলে এলো তার আসল রূপ!

এই মুহূর্তে দর্শকরা বেশ আগ্রহী হয়ে উঠেছে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলের নতুন ধারাবাহিক কোন গোপনে মন ভেসেছের (Kon Gopone Mon Bhesechhe) প্রতি। এমন অদ্ভুত গল্প বোধায় এর আগে কোন ধারাবাহিক সম্প্রচার করেনি। এই ধারাবাহিকে দুইটি ভূমিকা পালন করছে নায়িকা। নায়িকার শ্যামলী হয়ে না পারলেও ছদ্মবেশে তিস্তা হয়ে নায়কের মন জিতে নিয়েছে।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী, আবার দ্য গ্রেট বেঙ্গল ক্যাটারারে রান্না করছে শ্যামলী। এই কোম্পানির একজন গ্রাহক ভীষণ পছন্দ করেছে তার রান্না। শ্যামলীর হাতের তৈরি লুচি আর আলুর দম খেয়ে রীতিমত সেই রান্নার ভক্ত হয়ে গেছে সে। তার নিজের বাড়িতে একটা বড় করে পার্টি করতে চলেছে সেই ব্যক্তি আর সেখানে শ্যামলের তৈরি করা রান্নাই সে খাওয়াতে চায় তার আত্মীয়দের।

শ্যামলী কথা দেয় সে রান্না করবে। তবে এর পাশাপাশি অনিকেতের জন্য আরো একটি বড় ফ্যাসাদে পড়ে যায় শ্যামলী। অনিকেত সেই ব্যক্তির সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের চাহিদা মেটাতে বলে বসে, তার কাছে একজন কবি রয়েছে যে খুব ভালো কবিতা লেখে এবং পাঠ করে। এই প্রস্তাবে খুব খুশি হয়েছেন তিনি। আসলে অনিকেত তিস্তার কথাই এখানে উল্লেখ করে। অর্থাৎ একাধারে রান্না এবং কবিতা পাঠ দুটোই সামলাতে হবে শ্যামলীকে।

কিন্তু এত সহজে এই দুটো কাজ একসঙ্গে তাকে কিছুতেই করতে দেবে না অরুনাভ আর তৃষা। তারা নিজেদের মধ্যে প্ল্যান করে আর ঠিক করে যেভাবেই হোক না কেন অনিকেতকে এইবার আর কিছুতেই সফল হতে দেওয়া যাবেনা। এবার তাকে সবার সামনে ছোট করতেই হবে যাতে এই ব্যবসার থেকে তার নাম বাদ পড়ে। আর সেটা করতে গেলে আটকাতে হবে তিস্তাকে। তিস্তা যাতে কোনভাবেই এই পার্টি অবধি পৌঁছতে না পারে তার বন্দোবস্ত করে ফেলেছে তারা।

আরো পড়ুন: বাসন্তীর মুখ বন্ধ করতে তার বাবাকে মেরে ফেলল রুদ্র! স্যারকে বাঁচাতে এবার কী করবে ফুলকি?

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, এখনো অবধি এসে পৌঁছয়নি তিস্তা। ইভেন্টের মালিক অনিকেতকে বলে, তার লজ্জার আর শেষ থাকল না। সে এত গেস্টদের ডেকে ফেলেছে এখন সবার সামনে সম্মানহানি হবে তার। এসব শুনে অনেকে তাকে বলে, সে যেন দয়া করে এসব কথা তার বাবাকে না জানায়। এই সব কিছুর দায়ে ভার সে নিজের মাথায় নেবে। অন্যদিকে গুন্ডাদের সাথে লড়াই করে ওড়না ছাড়াই একা একা হেঁটে আসতে থাকে তিস্তা। অনেক বড় বিপদে পড়েছে সে।

Back to top button