টলিপাড়ায় ফের শোকের ছায়া, শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা পার্থসারথি দেব

বাংলার অভিনয় জগতকে অসম্পূর্ণ রেখেই পরলোক গমন করলেন বর্ষিয়ান অভিনেতা। সময়ের আগে জীবনের যাত্রায় ইতি টানলেন তিনি। শোকোস্তব্ধ গোটা বাংলা তথা চলচ্চিত্র জগত। অভিনেতার প্রয়াণে ভেঙে পড়েছে বাংলা বিনোদন দুনিয়া। তার চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না কেউই। এক অদ্ভুত শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে দর্শকদের মনে। এক অপূরণীয় ক্ষতির শিকার হয়েছে অভিনয় জগৎ।

চলে গেলেন অভিনেতা পার্থসারথি দেব (Partha Sarathi Deb)। নয় নয় করে প্রায় ৪০ বছর তিনি বিনোদন জগতের সঙ্গে নিজেকে ওতপ্রোতভাবে নিজেকে জড়িত রেখেছিলেন। তাঁর অনবদ্য অভিনয় এবং শিল্প সত্তা বারবার মনে ছুঁয়ে গিয়েছে দর্শকদের। প্রায় ২০০টিরও বেশি ছবিতে তাঁকে দেখা গিয়েছে অভিনয় করতে। প্রতিটি জায়গাতেই বেশ প্রধান চরিত্রেই থাকতেন তিনি। চরিত্র ইতিবাচক হোক বা নেতিবাচক, সবকিছুকেই নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে উজ্জ্বল করে তুলেছিলেন এই অভিনেতা।

শুধু টেলিভিশন বা বড় পর্দা নয় তার পাশাপাশি নাটকের মঞ্চেও তিনি সমান সাবলীল। শুধু তাই নয় ছোট পর্দাতেও নানা চরিত্রে তিনি মন কেড়েছেন দর্শদের। ‘চুনী-পান্না’, ‘জয়ী’র মতো জনপ্রিয় সব মেগায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় তাঁকে দেখা গিয়েছিল। তবে শারীরিক দিক থেকে বিগত কিছুদিন নানা সমস্যায় ভুগছিলেন অভিনেতা। সিওপিডির সমস্যা ছিল অভিনেতার।

বর্ষীয়ান অভিনেতা পার্থসারথি দেবের অভাবনীয় এই মৃত্যুর খবর দর্শকদের কাছে পৌঁছে যায় অভিনেতা জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ও রূপাঞ্জনা মিত্রর ফেসবুক পোস্ট এর মাধ্যমে। তাঁর প্রয়াণে ভেঙে পড়েছেন সকলে। গোটা চলচ্চিত্র জগৎ জুড়ে ছিলেন তিনি। এত তাড়াতাড়ি তাকে হারিয়ে ফেলতে চাননি কেউই।

আরও পড়ুন: শরীরে এসেছে বার্ধক্য! শেষ বয়সে কেমন দেখতে লাগে ‘মৌচাক’ খ্যাত বাঙালি অভিনেত্রী মিঠু মুখার্জিকে?

অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা লেখেন, “পার্পল ষ্টুডিওতে তোমার এক ছবির কাজ চলছিল আর আমাদের অনুরাগের ছোঁয়ার শুট চলছিল… তুমি নিজে এসে দেখা করে গেলে… কয়েকজন তোমার চেনা শিল্পী আছো জেনে তুমি তোমার শট দিয়ে আমাদের সিন দেখতে এসেছিলে, এই তো গেলো মাসের কথা.. কোর্ট সিন চলছিল আমাদের।” জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ফেসবুকের পাতায় লেখেন, ‘চলে গেলেন একজন অসাধারণ অভিনেতা পার্থসারথি দেব। থাক আজ আর আমাদের সেসব দিনের কথা বলবোনা কমরেড’।

Back to top button