টলিপাড়ায় শোকের ছায়া, সংকটে বর্ষীয়ান অভিনেতা! চিন্তিত দর্শক মহল

বাংলায় বিনোদন (Bengali Entertainment) জগতে এমন অনেক অভিনেতা অভিনেত্রীরা রয়েছেন যারা একসময় দর্শকদের (Audience) মনে সদা বিরাজমান থাকতেন। কিন্তু বর্তমানে বয়সের ছাপ পড়ায় আর তেমনভাবে টেলিভিশনের (Bengali Television) পর্দায় অথবা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে নিজেদের প্রকাশ করেন না তারা। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে বয়স হয়ে যাওয়ার দরুন কাজ পেতেও সমস্যা হয়।

ইতিমধ্যেই এমন অনেক অভিনেতা অভিনেত্রীদের দর্শকরা দেখেছেন যারা বার্ধক্য জনিত কারণে অভিনয় সুযোগ পাচ্ছেন না বা বলা ভালো বঞ্চিত হচ্ছেন। একসময় তারাই ছিলেন চলচ্চিত্র জগতের উজ্জ্বলতম তারকা। তাদের অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে সম্পূর্ণ হয়েছে চলচ্চিত্র জগত। অথচ আজ তাদেরই তেমনভাবে কোন মূল্য দেওয়া হয় না।

ঠিক তেমনই ঘটেছে এই অভিনেতার সাথেও। বহুদিন যাবত নিজেকে একেবারে ঘর বন্দী করে নিয়েছিলেন এই জনপ্রিয় অভিনেতা। এককালে অভিনয় জগতে তার দাপট ছিল দেখবার মতন। যে সিনেমাতে তিনি থাকতেন, নিজের দক্ষতা প্রয়োগ করে সেটিকে আরো বেশি সমৃদ্ধ করতেন। বেশিরভাগ চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে দেখা যেত তাকে। তবে এই মুহূর্তে বহুদিন যাবত আর অভিনয়ের সঙ্গে সম্পর্ক রাখেননি তিনি।

তিনি হলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের বর্ষীয়ান অভিনেতা মনোজ মিত্র (Manoj Mitra)। সিনেমা থেকে থিয়েটার সব জায়গাতেই অবাধ বিচরণ ছিল তার। সব জায়গাতেই নিজের অসামান্য প্রতিভার ছাপ রেখে গিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি তার শারীরিক অবস্থা একেবারেই ভালো নয়। বয়স হয়েছে অনেকটাই। শারীরিক দিক থেকে একেবারেই ভেঙে পড়েছেন তিনি।

বর্তমানে তার তিনকাল গিয়ে এককালে ঠেকেছে। বয়স ৮৪ বছর। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন এই অভিনেতা। এরপর একদিন অসুস্থতা বারে। কলকাতার এস এস কে এম হসপিটালে ভর্তি করা হয় তাকে। জানা গিয়েছে তার হার্টের অবস্থা একেবারেই ভালো ছিল না। অনেকদিন ধরেই ভুগছিলেন তিনি এই নিয়ে। হার্ড কমজুরি হয়ে যাওয়ায় পেসমেকার বসাতে হয়েছে। যন্ত্রটি প্রতিস্থাপনের পর আগের তুলনায় একটু ভালো রয়েছেন অভিনেতা মনোজ মিত্র। অভিনেতার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছে তার অনুরাগীরা।

Back to top button