শেষ পর্বেই হতে চলেছে ধামাকা! ধারাবাহিক নিচ্ছে নতুন মোড়! সম্প্রচারের আগেই ফাঁস অষ্টমীর অন্তিম পর্ব!

জি বাংলার (Zee Bangla) ইতিহাসে সবচেয়ে কম সময়ে শেষ হল কোনও ধারাবাহিক। মাত্র ৭৭ পর্ব সম্প্রচারের পর টেলিভিশনের পর্দা থেকে বিদায় নিচ্ছে ‘অষ্টমী’ (Ashtami)। প্রথম প্রচার ঝলকে দর্শকদের জন্য একাধিক চমক দিয়েছিল এই মেগা। দেখা গিয়েছিল অন্ধ হয়ে যাবে গল্পের নায়িকা। ধারাবাহিকের গল্প সেই মোড় পর্যন্তও পৌঁছল না।

টান টান উত্তেজনায় ভরপুর ‘অষ্টমী’র অন্তিম পর্ব

তবে শেষদিনে অনেক গুছিয়ে শেষ হল এই মেগা। জট খুলল একাধিক সাসপেন্সের। বৌরানীর দেখানো পথ অনুসরণ করে, গুপ্ত কুঠুরি থেকে জয়দেবকে উদ্ধার করে অষ্টমী। আসলে বৌরানী তার উপর ভর করে। পুরুষোত্তম যা করে তার পুরোটাই নাটক। সে আসলে সন্ধান পেতে চায় গুপ্তধনের। কিন্তু একমাত্র এই গুপ্তধনের সন্ধান জানে, জয়দেব ঠাকুর।

জয়দেব ছিলেন বৌরানীর আসল পূজারি। গুপ্তধনের লোভে দীর্ঘ তেইশ বছর আটক করে রাখে পুরুষোত্তম। প্রকাশ্যে আসে আরও সত্যি। পুরুষোত্তম সিংহের মুখোমুখি দাঁড়ায় জয়দেব। গ্রামবাসীর সামনে সব সত্যি প্রকাশ্যে আসে। জয়দেব জানে, তেইশ বছর আগে তার স্ত্রী সন্তান পেটে নিয়ে গ্রাম ছেড়েছিল। যাতে, শয়তান পুরুষোত্তমের হাত থেকে সন্তানকে রক্ষা করতে পারে। আর সেই সন্তান আর কেউ নয়, অষ্টমী।

অষ্টমীর শেষ পর্বে একের পর এক চমক

বলা বাহুল্য গল্পের ট্র্যাক অনুযায়ী, জয়দেব ঠাকুর পুরুষোত্তমের আসল বাবা। ইতিমধ্যে পুলিশ এসে উপস্থিত হয়েছে ঘটনাস্থলে। পুরুষোত্তমকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় তারা। গুপ্তধনের মালিক হয়, আয়ুষ্মান ও অষ্টমী। সেই অর্থ দিয়ে নবগ্রামে উন্নতি হবে বলে ঠিক করে যুগল।

আরও পড়ুন: বর্ষার অবস্থা দেখে ভয় পেয়ে গেলো পিকলু! মৃত্যুর মুখ থেকে বর্ষাকে বাঁচালো পর্ণা! বুদ্ধি দিয়ে রোজীকে মাত দিলো নায়িকা!

গুছিয়ে শেষ হলেও, বড্ড অল্প সময়ে শেষ হল সপ্তর্ষি মৌলিক ও ঋতব্রতা দে অভিনীত জি বাংলার ধারাবাহিক ‘অষ্টমী’। তাড়াতাড়ি শেষ হওয়ায় শেষ দিনেও মন ভরেনি দর্শকদের। এখন দেখার অষ্টমীর স্লট ভরাতে আসে কোন নতুন ধারাবাহিক।

 

Back to top button