ফুলশয্যার খাটে মা ঘুমাচ্ছে ছেলের বুকে মাথা রেখে আর নতুন বউ বসে চেয়ারে! “কার কাছে কই মনের কথা”র দৃশ্য দেখে চরম কটাক্ষ দর্শকমহলে

এরমধ্যেই সম্প্রতি শুরু হওয়া একটি ধারাবাহিক জি বাংলার (Zee Bangla) ‘কার কাছে কই মনের কথা’ (Kar Kache Koi Moner Kotha) এমনই কিছু অবস্থাকে বারংবার সামনে আনছে। বিশেষ করে বিয়ের পর যদি শ্বশুরবাড়ির মানুষেরা বাজে মানসিকতার হয়, তাহলে একজন বউয়ের পক্ষে কতটা মানিয়ে থাকা মুশকিল হয়ে পড়ে তাই তুলে ধরছে শিমুল (Shimul)। তবে মুখ বুঝে সহ্য না করে ভুল জিনসের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর মতোই প্রতিবাদী এই শিমুল চরিত্রটি।

এতদিন ধরে ধারাবাহিকটি বেশ ভালো লাগছিল দর্শকদের। তারাও কেমন যেন নিজের সাথে কোথাও গিয়ে মিল খুঁজে পাচ্ছিলেন এই ধারাবাহিকের। সমাজের কত নতুন বউদের এমন অত্যাচার সহ্য করতে হয়, সব হয়তো প্রকাশ্যে আসে না। কিন্তু এই দিনের পর্বে ধারাবাহিকটির উপর ভীষণ বিরক্ত হয়েছেন দর্শক মহল।

এদিন দেখানো হয় ফুলশয্যার রাতে একে অপরের সাথে কথা বলছে পরাগ আর শিমুল। ঘুমোতে যাওয়ার আগে আলো নেভাতে গেলে দরজায় ধাক্কা মারে শিমুলের শাশুড়ি। এত রাতে হঠাৎ তার ঘরে কেন এলেন তিনি সেটা বুঝে ওঠার আগেই তার শাশুড়ি শুরু করে দেয় বুকে যন্ত্রণা নাটক।

তবে সেখানেও শিমুল চুপ থাকেনি সে শাশুড়িকে জিজ্ঞাসা করেছে ছোট ছেলের ঘর পেরিয়ে বড় ছেলের ঘরে কেন এসেছেন তিনি? তার জন্য ছেলেকে দিয়ে দু চার কথা শুনেও দিয়েছেন শাশুড়ি। এরপর ওষুধ পত্র খাওয়া হলে ছেলের ফুলশয্যার বিছানাতেই ছেলের বুকে মাথা দিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন মা। আর নতুন বউয়ের ঠাঁই হয় চেয়ারে। এমন দৃশ্যে ক্ষেপে লাল দর্শকরা।

এ কেমন নোংরামি? যতই হোক ফুলশয্যার রাতে ছেলে বৌমার ঘরে মা? তাও আবার শরীর খারাপের নাটক করে? এটাও কি সম্ভব? এই দৃশ্য ভীষণ অপছন্দ হয়েছে ভক্তদের। যার ফলে ধারাবাহিকটিকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে নেট পাড়ায়। কেউ মন্তব্য করেছেন “এইসব সিরিয়াল ভালো লাগে কি করে দর্শকদের? বেশি টিআরপির জন্য এরা কি না কি করে”, আবার কেউ বলেছেন, “ভেবেছিলাম পাঁচ জন বন্ধুর গল্প হবে কিন্তু এ তো পুরোই যাতা।” অর্থাৎ এই দৃশ্য একদমই মেনে নিতে পারেনি দর্শক মহল।

Back to top button