লীনা গাঙ্গুলি মানেই স্যারের সঙ্গে ছাত্রীর টক-ঝাল সম্পর্কের ছোঁয়া! স্টার জলসার জনপ্রিয় মোহর-শঙ্খর স্মৃতিতে দর্শক!

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক (Bengali Serial) ‘মিঠিঝোরা’ (Mithijhora)। রাত সাড়ে ন’টার স্লটে রীতিমতো দাপট দেখাচ্ছে এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের গল্প তিন বোনকে নিয়ে।‌ একদিকে যেমন বড় বোন রাই চাকরির খোঁজই মাথা খুটে মরছে, নিজেকে প্রমাণ করার জন্য ক্রমাগত লড়ে যাচ্ছে অন্যদিকে তেমন‌ মেজ বোন নীলাঞ্জনার বিবাহিত জীবনে উথাল পাথাল চলছে। এসবের মধ্যে ছোট বোন স্রোতস্বিনীর জীবনে হাজির হয়েছে তাঁর নায়ক। স্যার কেউ নয়, স্রোতের ডাক্তারি কলেজের প্রফেসর।

ধারাবাহিকের বিগত পর্বে দেখা যায় স্যারের সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার পর থেকেই সার্থক স্যারের সঙ্গে সরাসরি বিবাদে জড়িয়েছে স্রোত। স্রোতের চরিত্রটি অত্যন্ত প্রতিবাদী। অন্যায় না করলে সে কোনো অপবাদ সহ্য করবে না। স্যারের সঙ্গে ফিল্মি স্টাইলে ধাক্কা খাওয়ার পর সার্থক স্যার তাঁকে যত কথা শোনায়, স্রোত তার দ্বিগুণ কথা শুনিয়ে দেয় স্যারকে।

Sarthak and Sroth

এরপর কলেজের প্রফেসর সার্থক স্যার স্রোতকে নিয়ে হাজির হয় প্রিন্সিপালের রুমে। এখানে গিয়ে স্রোতের নামে কমপ্লেন করেন তিনি। কিন্তু স্রোত চুপ করে থাকার মেয়ে নয়। নিজের হয়ে সমানে কথা বলে যেতে থাকে সে। তাদের পরিবারের অবস্থা, তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন সবটাই তুলে ধরে প্রিন্সিপাল রুমে। প্রিন্সিপাল স্যার শেষমেষ স্রোতকে শাস্তি দেয় না। বরং স্রোত ও সার্থকের বাকবিতন্ডা থামাতে হিমশিম খায়।

তবে এখানেই শেষ নয়, পরেরদিন সার্থক স্যারের ক্লাসে দেরি করে আসায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় স্রোতকে। পরে ক্লাসে ঢোকার অনুমতি পেলেও পরীক্ষার পড়াশোনা ঠিক করে তৈরি হয়নি বলে স্রোত স্যারকে বলে পরের দিন পরীক্ষাটি নেওয়ার জন্য। তবে সার্থক স্যারই বা মানবেন কেন? তিনি কড়া হুকুম দেন, যার পড়া তৈরি হয়নি সে যেন ক্লাস থেকে বেরিয়ে যায়। অপমানিত হয়ে ক্লাস ছাড়ে স্রোত।

আরও পড়ুনঃ ‘জগদ্ধাত্রী’-তে মেহেন্দির নতুন চ্যালেঞ্জ! উৎসবকে জব্দ করতে মেহেন্দিকে নিয়ে বাড়ি ছাড়লো শকুন্তলা!

তবে গোটা ঘটনায় বেশ মজা পাচ্ছে স্রোতের বন্ধুরা। স্রোত আর সার্থক স্যারের টক ঝাল মিষ্টি সম্পর্ক চোখে পড়ছে সবারই। এটাই তো লীনা গাঙ্গুলীর ধারাবাহিকের পুরাতন ট্র্যাক। ঠিক যেন‌ ‘মোহর’ ধারাবাহিকের মোহর ও শঙ্খর ছায়া। সোনামণি ও প্রতীক কথা ‘সোনাতিক’ জুটির রেশ ‘মিঠিঝোরায়’ খুঁজে পাচ্ছেন টেলি দর্শকেরা।

Back to top button