বিয়ের মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই নিজের কাছের মানুষকে হারালেন পর্দার বেণী বৌদি!

বাংলা টেলিভিশন জগতের একজন খ্যাতনামা অভিনেত্রী হলেন সুদীপ্তা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১ মে ধুমধাম করে বিয়ে করেছিলেন সুদীপ্তা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সৌম্য বক্সী। বাইপাস সংলগ্ন একটি ব্যাঙ্কোয়েটে সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন তারা। কপালে চন্দন, পরনে লাল বেনারসি, সোনার গয়না—আদ্যোপান্ত বাঙালি সাজে ধরা দিয়েছিলেন ‘সোহাগ জল’ সিরিয়ালের বেণী বৌদি।

অনেকদিন ধরেই বিয়ের প্রস্তুতি চলছিল। মে মাসের প্রথম দিনে চার হাত এক হয়েছিল তাদের। প্রাক্তন বিধায়ক স্মিতা বক্সীর ছেলে সৌম্য বক্সীর সঙ্গে দীর্ঘ দিনের প্রেম ছিল তাঁর। অনেক অপেক্ষার পর এক হয় তারা। আর তারপরেই ঘটে গেল চরম দুর্ঘটনা।

তাদের বিয়ের বয়স বর্তমানে ছ’মাস। কিছুদিন আগেই স্বামীকে নিয়ে মধুচন্দ্রিমা কাটিয়ে এসেছেন অভিনেত্রী সুদীপ্তা। তার পরই চলে এলো পুজোর মরসুম। শহর জুড়ে চারিদিকে আলোর জোয়ার। কিন্তু এই দীপাবলির আগের দিনই হারিয়ে ফেললেন নিজের জীবনের কাছের মানুষকে।

১০ নভেম্বর প্রয়াত হলেন অভিনেত্রীর বাবা। বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি। দুর্গাপুজোর সময় ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সোমবার অভিনেত্রীর বাবার পরলৌকিক ক্রিয়া। স্বাভাবিক ভাবেই ভেঙে পড়েছেন সুদীপ্তা।

এক সংবাদ মাধ্যম অভিনেত্রীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘‘বিয়ের ছ’মাসের মধ্যে বাবাকে হারিয়ে ফেললাম। অনেক চেষ্টা করেছিলাম ধরে রাখার, কিন্তু পারলাম না। পুজোর পর সবে আবার কাজে ফিরেছিলাম। শুটিংয়ের পর বাড়ি ফিরে দেখি বাবা নেই। নিউমোনিয়া থেকে সেপ্টিসেমিয়া হয়ে যায় বাবার। আমি আর সৌম্য বাইরে থেকে ঘুরে আসার পর থেকেই অসুস্থ ছিলেন বাবা। কিন্তু এ ভাবে হারিয়ে ফেলব…।’’ কথা বলতে বলতেই চুপ অভিনেত্রী। তিনি খুব তাড়াতাড়ি পিতৃবিয়োগের শোক কাটিয়ে উঠুন এটাই কামনা করেছেন তাঁর সতীর্থেরা।

Back to top button