ধুন্ধুমার প্রোমো! মধুবালা দেবে মেয়ে শিমুলের আবার বিয়ে! পরাগকে ডিভোর্স দিইয়ে শতদ্রুকে করবে পাত্র!

জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে। এইবার ধারাবাহিকে আসতে চলেছে অনেক বড় টুইস্ট।

এই ধারাবাহিকটি প্রধানত ভীষণভাবে নারী কেন্দ্রিক। বিশেষ করে একটি নারী সমাজে যে বাধা-বিপত্তির সম্মুখীন হয় সেগুলিকেই তুলে ধরেছে নাটকীয়তার মোড়কে। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের উপর দিয়ে যে পরিমাণ অত্যাচার অন্যায়-অবিচার হয়েছে সে সবই সমাজের কোনো না কোনো নারীর উপর হয়েই চলেছে। তবে শিমুলের নেওয়া পদক্ষেপ এবং সাহসিকতা তাদের আলোর দিশা দেখালেও দেখাতে পারে।

বর্তমানে ধারাবাহিকের প্লট অনুযায়ী শিমুলের সুখ আনন্দ কিছুতেই সহ্য করতে পারছে না তার দেওর পলাশ এবং স্বামী পরাগ। তার হাসি ছিনিয়ে দিতে তাকে সরিয়ে দিতেও হাত কাঁপলো না তাদের। আর ছোটখাটো কোন ঘটনা নয় একেবারে বিষ খাইয়ে শিমুলকে শেষ করে দেওয়ার পরিকল্পনা করে তারা।

সৌভাগ্যবশত বেঁচে যায় শিমুল। আর হয়তো শিমুলের জন্যই বেঁচে যাবে পরাগ আর পলাশ কারণ শিমুল তার শাশুড়ি মা মধুবালাকে ভীষণ ভালোবাসে। কিন্তু এইবার শাশুড়ি মায়ের ভালোবাসার পরীক্ষা দেওয়ার পালা আর সেই পরীক্ষায় ১০-১০০ পাবেন তিনি। শাশুড়ি হয়ে তিনি যেটা করতে চলেছেন সেটা সত্যিই অভাবনীয়। তারিখ এক ঝলক প্রকাশ পেল সম্প্রতি সম্প্রচারিত নতুন প্রোমোতে।

সম্প্রতি প্রকাশ পাওয়া নতুন প্রোমোতে দেখা যায় বিয়ের বাজার করে এনেছে মধুবালা। তিনি বলেন “একেবারে জোড়া বিয়ের বাজার করে এনেছি”। শিমুল অবাক হয়ে জিজ্ঞাসা করে একটা বিয়ে তো পলাশ আর প্রতীক্ষার তবে আরেকটা বিয়ে কার? তখন মধুবালা বলে আরেকটা বিয়ের শিমুলের। পরাগ বলে শিমুলকে সে ডিভোর্স দিয়ে তাড়িয়ে দেবে। তখন মধুবালা সবাইকে জানায় শিমুলও পরাগকে ডিভোর্স দেবে আর তারপরে সে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে তার মেয়ে শিমুলের সাথে শতদ্রুর বিয়ে দেবে। এই শুনে অবাক হয়ে যায় পরাগ।

Back to top button