কুটনি শাশুড়ির হাত থেকে গেল সংসারের হাল! শিমুল নেবে সংসারের দায়িত্ব, রইল আজকের পর্ব

দায়িত্ব থেকে সরে গেল শিমুলের শাশুড়ি, এবার সংসারের হাল ধরল শিমুল!

বর্তমানে জি বাংলার (Zee Bangla) অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিককে পরিণত হয়েছে সদ্য প্রকাশিত কার কাছে কই মনের কথা ধারাবাহিকটি (Kar kache koi moner kotha)। যত দিন যাচ্ছে সমাজের খুঁটিনাটি অপ্রিয় সত্যগুলোকে উপস্থাপন করছে এই ধারাবাহিক। এই সিরিয়ালটির প্রধান আকর্ষণ মানালি দে অর্থাৎ নায়িকা শিমুল।

সম্প্রতি বাড়িতে একটি বড় ঘটনা ঘটে গিয়েছে। যদিও ঘটনাটা সামান্য কিন্তু শিমুলের দোষকে এখানে অনেক বড় করে দেখা হয়েছে। আরেকটু হলে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হচ্ছিল শিমুলকে। কিন্তু শিমুল ভাঙতে জানে না জুড়তে জানে। তাই আবার সম্পর্কটা জুড়ে নেয় সে। সমস্ত কিছুর জন্য রাগ থেকে অভিমান থেকে শিমুল বলে দেয় সে জোর ভাঙতে বাপের বাড়ি যাবে না। সেই নিয়েও তাকে অনেক কথা শুনতে হয় কিন্তু শিমুল তার জেদে অনর।

কাউকে কিছু না বলেই রান্নার দায়িত্ব নিল শিমুল

এদিনের পর্বে দেখা যায় এই ঝামেলা ঝগড়াঝাঁটির পরবর্তী দিন শিমুল নিজেই রান্নাঘরে গিয়ে রান্না করছে। শিমুলের হাতে রান্না খাবে বলে পুতুল তো লাফাচ্ছে। অন্যদিকে পলাশ তার মাকে বলছে ও যে রান্না ঘরে ঢুকে গেল ও একবারও কি অনুমতি নিয়েছে সে কি রান্না করবে বা কতটা কি খরচা করবে। ও তো আর টাকা দেবে না খরচাপাতির। তখন পরাগের মা বলে “ও কোন অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন মনে করেনি। সকালে উঠে দেখি রান্না করছে।”

শিমুলকে দায়িত্ব দেওয়ার কথা বলল পরাগ

শিমুল সামনে আসায় তাকে এই একই প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। তখন শিমুল বলে, “মা তো ঘুমোচ্ছিলেন সকালে, আর মায়ের শরীরটা খারাপ। সেই বিয়ের পর থেকে দেখে যাচ্ছি একা হাতেই সবকিছু করছেন। তাই আর ডেকে বিরক্ত করিনি।” তখন পরাগ তার মাকে বলে, “ও যখন কাজ করতে চাইছে ওকে করতে দাও না। আর সমস্ত দায়িত্ব বউয়ের হাতে দিয়ে একটু বিশ্রাম করবে বলেই তো বিয়ে দিয়েছিল আমার।”

শিমুলের হয়ে প্রতিবাদ করল সুচরিতা বিপাশা

এর পরই সেখানে হাজির হয় বিপাশা, সুচরিতারা। তারা আসতেই প্রথমেই বলে “কালকের অশান্তির জন্য নাকি শিমুলকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছিল? ও কি দোষ করেছে ওকে তো শুধু পাশের বাড়িতেই নিয়ে গিয়েছিলাম। আর সবার সামনে নেমন্তন্ন করেছিলাম।” তখন পরাগ বলে, “দেখো এটা আমাদের পারিবারিক বিষয় এখানে তোমরা মাথা গলাতে এসো না।” কিন্তু তারা শুনতে চায় না তারা বলে যেহেতু এই সমস্ত বিষয়টার সূত্রপাত তাদের বাড়িতে যাওয়ার জন্য হয়েছিল তাই যদি শিমুল কষ্ট পায় তাহলে তাদেরকে তো এগিয়ে আসতেই হবে। এর পরবর্তী দিনগুলো শিমুলের এই বাড়িতে কষ্টকর হয়ে উঠুক এটা তারা চায় না।

Back to top button