গয়না মেয়েদের স্ত্রীধন সেটার অধিকার কাউকে দেওয়া উচিত নয়, শিমুলের অধিকারের জন্য লড়াই দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ দর্শক

বর্তমানে জি বাংলার (Zee Bangla) একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kache Koi moner kotha)। খুব বেশিদিন হয়নি সম্প্রচারিত হচ্ছে এই ধারাবাহিকটি, এর মধ্যেই দর্শকদের মন জয় করেছে এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকটির প্লটের সাথে বাস্তবের অনেক মিল খুঁজে পাচ্ছেন দর্শক মহল।

শুরুতে দর্শকরা ধারাবাহিকটিকে অতটাও পছন্দ না করলেও ধীরে ধীরে সমাজের বিভিন্ন দিক তুলে ধরার জন্য নিজেদের সাথে অনেক বিষয়কে মেলাতে পারছেন তারা। যার ফলে ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই ধারাবাহিকে পাঁচটি মেয়ের জীবনের কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে।

এদের মধ্যে প্রধান চরিত্র অভিনেত্রী মানালি দে-র। এখানে তিনি শিমুলের ভূমিকায় অভিনয় করছেন। শিমুল এমন একটি মেয়ে যে মুখ বুঝে সহ্য না করে প্রতিবাদ করে। সেই শুরুর দিন থেকেই শিমুলের শাশুড়ি নানান কারণে যুক্তিহীন ভাবে লাঞ্ছনা গঞ্জনা দিয়ে চলেছে শিমুলকে। আর প্রত্যেক বার অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী রূপ ধারণ করেছে শিমুল।

এইবারেও তার অন্যথা হলো না। শিমুল নিজের বাড়ি থেকে যে সমস্ত সোনার গয়না গাটি নিয়ে এসেছিল সে সমস্ত কিছুর ওপরেই অনেকদিন ধরে নজর ছিল তার শাশুড়ি মায়ের। এইবার শিমুলের কাছ থেকে সেগুলো নেওয়ার জন্য তোর জোর শুরু করেন তিনি। কিন্তু শিমুল ও ছাড়ার পাত্রী নয় নিজের বাড়ি থেকে আনা নিজের স্ত্রীধন সে কেন কারুর হাতে তুলে দেবে? মায়ের পক্ষ নিয়ে তার স্বামী পরাগ অব্দিও তার সমস্ত গয়না তার মাকে দিয়ে দিতে বললে শিমুল কিছুতেই তাতে রাজি হয় না।

শিমুলের সাথে যে ঘটনা বর্তমানে ঘটছে এই ঘটনার শিকার বাংলার অধিকাংশ সদ্য বিবাহিত নারী। পার্থক্য শুধু এটাই তাদের সাথে ঘটা এই অন্যায় কেউ জানতে পারে না। তাদের মধ্যে অনেকেই প্রতিবাদ করতে পেরেছে আবার অনেকেই পারেনি। শিমুল নিজের অধিকার বজায় রাখতে এবং নিজের জিনিস নিজের কাছে রাখতে যে লড়াইটা করে চলেছে তা দেখে বর্তমান দর্শকরা ভীষণ খুশি। শিমুলের এই ঘুরে দাঁড়ানো হয়তো তারই মত আরো কিছু শিমুলকে নিজের অধিকার আগলে রাখার সাহস যোগাবে।

Back to top button