বাড়ি ছেড়ে এবার গোটা পাড়ার সামনে অপমানিত শিমুল! রইল আজকের উত্তেজিত পর্ব

এবার সবার নিশানায় শিমুল, পুতুল দির মন ভালো করতে গিয়ে সকলের কাছে অপমানিত সে, নতুন করে আবার বিপদের সম্মুখীন শিমুল

৩ জুলাই জি বাংলার (Zee Bangla) পর্দায় শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক কার কাছে কই মনের কথা(Kar Kache Koi moner kotha)। সম্প্রচারের আগে প্রমোশনেও ছিল বিশেষ চমক। পাঁচ বান্ধবীর গল্প অবলম্বনে তৈরি হয়েছে এই ধারাবাহিকটি। মানালি থেকে স্নেহা, কুয়াশা থেকে সৃজনী, বাসবদত্তা এই পাঁচজনকে নিয়ে গল্প হলেও ধারাবাহিকের প্রধান আকর্ষণ মানালি অর্থাৎ শিমুল।

বিয়ের হয়ে নিজের শ্বশুরবাড়িতে পা রাখার পর থেকেই শিমুল খুব ভালো করেই বুঝে গিয়েছে সে যে বাড়িতে এসেছে সেই বাড়িতে সর্বেসর্বা তার শাশুড়ি। এই বাড়িতে থাকতে হলে তাকে একজন দাসীর মতনই থাকতে হবে। সকালে শাশুড়ি মায়ের চাহিদা এবং রাতে স্বামীর চাহিদা এই দুই পূরণ করা ছাড়া তার বিশেষ কোনো ইচ্ছা-অনিচ্ছার দাম যে সে পাবে না সেটা তার স্বামী শাশুড়ির ব্যবহার দেখেই আন্দাজ করেছিল শিমুল।

ভয়ে টেনশনে কোনো কিছুই কানে ঢোকে না শিমুলের

বিয়ে হয়ে আসার পর নতুন বউকে বাড়িতে নেমন্তন্ন করে তার প্রতিবেশী বিপাশা। সেখানে থাকে আরো অনেকে। পুতুল দি জোর করায় বাধ্য হয়ে সেখানে যেতে রাজি হয় শিমুল। তবে যাওয়ার আগে সে পুতুল দির কথায় একটা ভুল করে বসে। বাড়ির বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেয়। যার ফলে বিপাশার বাড়িতে গিয়েও একটুখানিও শান্তি পায় না সে। সার্বক্ষণ সে ভাবতে থাকে যদি কেউ চলে আসে যদি কোন বিপদ হয় তখন কি হবে।

তালা দেওয়া দেখে ওপর রেগে আগুন সবাই

শিমুলের এই দুশ্চিন্তা ব্যর্থ হয়নি। সেই দিনই পরাগের স্কুলের একজন শিক্ষক মারা যান ফলে তাড়াতাড়ি ছুটি হয়ে যায় স্কুল। অন্যদিকে পলাশও ফিরে আসে সময়ের কিছুক্ষণ আগেই। বাইরে থেকে তালা দেওয়া দেখে অবাক হয়ে যায় তারা আর তারপরেই তাদের ডাকাডাকিতে উঠে পড়ে শিমুলের শাশুড়ি। এরপর শিমুল এইসব করেছে বুঝতে পেরে প্রত্যেকে শিমুলের ওপর ভয়ংকর রেগে যায়। পলাশ সেখানে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে বলে যদি আজ শিমুলের কোন বিচার না হয় তাহলে সে বাড়ি ছেড়ে চলে যাবে।

শিমুল আসতেই সবার নিশানা তার দিকে

শিমুল বাড়ির দিকে রওনা হলেই সে দেখতে পায় বাড়ির সামনে জমেছে প্রতিবেশীদের ভিড়। সে বুঝতে পারে অনেক বড় বিপদ ঘটে গিয়েছে। বাড়ি ফিরে তালা খুলে ভিতরে ঢুকতেই সবাই মিলে জেরা করা শুরু করে শিমুলকে। শিমুলের শাশুড়ি মা শিমুলকে বলে এইবার তার মাকে ফোন করে অনেক কথা শোনাবেন তিনি। পরাগ শিমুলকে রীতিমতো ধমকায় এবং বলে “এই সমস্ত কি শুরু করেছ তুমি?” বর্তমানে ভীষণ খারাপ পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে শিমুল। কিভাবে সেখান থেকে উদ্ধার পাবে সে?

Back to top button