মাঝ রাস্তায় শিমুল পুতুলকে রক্ষা করল শতদ্রু! কিন্তু তাকে দেখে বাড়ি ফিরতে অন্য রূপে পরাগ!

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে যে সমস্ত ধারাবাহিক গুলি সম্প্রচারিত হচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে। বাস্তব বিষয়গুলিকেই নাটকীয়তার মধ্যে দিয়ে ফুটিয়ে তুলছে এই মেগা।

সম্প্রতি ধারাবাহিকের প্লট অনুযায়ী, শিমুল আর পুতুল দুজনে পরাগের অমতেই শতদ্রুর বোনের বিয়ের নিমন্ত্রণে চলে যায়। তাদের পাশে থাকে মধুবালা কিন্তু পরাগ ও পলাশ সেটা কিছুতেই মেনে নিতে পারে না। তাদের বাড়ি ফিরতে দেরি হওয়ায় একের পর এক কুমন্তব্য করতে থাকে তারা।

বাড়ির প্রত্যেকে ভীষণ চিন্তা করতে থাকে। এত রাতে দুটো মেয়ে কি করছে কোথায় আছে কিছুই বুঝতে পারে না তারা। এমন সময় পলাশ বলে ওঠে এমন মেয়ে কখনো কোন বাড়ির বউ হতে পারে না যখন লাশ নিয়ে ফিরবে তখন বুঝবে কত ধানে কত চাল। এই শুনে ভীষণ রেগে যায় মধুবালা আর পলাশকে সেখান থেকে নিজের ঘরে চলে যেতে বলে।

এরপর দেখা যায় তুতুল শিমুলের খবর জানতে ফোন করে তার ছোট বৌদিকে আর তার ছোট বৌদি ফোন করে শিমুলের বন্ধুকে তখন শিমুলের সেই বন্ধু এই সমস্ত বিষয়ে জানায় শতদ্রুকে। শিমুল এতক্ষণ ফোনটা অফ করে রেখেছিল, সে যখনই ফোনটা অন করে তখনই ফোন করে শতদ্রু।

অন্যদিকে গাড়ি খারাপ হয়ে যাওয়ায় মাঝ রাস্তায় দাঁড়িয়ে আছে পুতুল আর শিমুল। এর মাঝেই কিছু খারাপ লোক তাদেরকে টার্গেট করলে শিমুল খুব বুদ্ধি করে সেই বিপদ এড়িয়ে যায়। এরপর শতদ্রু ফোনটা পেয়ে তাকে সবকিছু খুলে বলে। শতদ্রু তারপর নিজেই শিমুল আর পুতুলকে তাদের বাড়ি পৌঁছে দেয়। তারা শতদ্রুর গাড়িতে ফিরেছে এই কথাটা যেন বাড়িতে কাউকে না বলে এমনটা পুতুলকে শিখিয়ে দেয় শিমুল। বাড়ি ফিরতেই মধুবালাকে সমস্ত কিছু খুলে বলে সে। অন্যদিকে পরাগ একগাদা নোংরা নোংরা কথা শোনাতে থাকে শিমুলকে তবে এখন আর শিমুল সেসব কিছু নিজের গায়ে মাখে না। মূল বিষয় হলো পুতুল কি পারবে শিমুলের না বলতে বলা কথাগুলোকে নিজের মধ্যে চেপে রাখতে?

Back to top button