ছেলের স্বপ্ন পূরণে মায়ের অক্লান্ত পরিশ্রম! রুবেলের জীবনের স্ট্রাগেল শুনলে চোখে জল আসবে দর্শকের

বর্তমানে অভিনয় জগতে বা এই গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডে এমন অনেক তারকা রয়েছেন যারা কোনো রকম সুযোগ-সুবিধা ছাড়া কেবলমাত্র নিজের দক্ষতা এবং প্রতিভার জোরে নিজস্ব একটি জায়গা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। তাদের মধ্যেই একজন হলেন অভিনেতা রুবেল দাস (Rubel Das)

অভিনেতা রুবেল দাসকে বর্তমানে কে না চেনেন? নিজের প্রতিভার জেরে আজ তিনি জনপ্রিয় তারকা। বর্তমানে জি বাংলায় তার অভিনীত সিরিয়াল ‘নিম ফুলের মধু’ রয়েছে টিআরপির প্রথম সারিতে। এছাড়াও রুবেল এক নাচের রিয়ালিটি শো থেকে উঠে এসেছেন এই খবরও প্রায় সকলেরই জানা।

তবে এই অভিনেতার ভক্তরা যেটা জানেন না সেটা হল, এই জায়গাটা অর্জন করার পেছনে রুবেলের মায়ের হাড়ভাঙ্গা খাটনি এবং সহযোগিতা। ছেলেকে বড় করতে গিয়ে অভিনেতার মা আত্মবলিদানের সংগ্রামের দিকে নিজেকে অবলীলায় ঠেলে দেন।

নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম হয় রুবেলের। বাবা যে কারখানায় কাজ করতেন তা হঠাৎই বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এক নিদারুণ অর্থাভাবে পড়েন রুবেলের পরিবার। ছেলের ইচ্ছে ছিল নৃত্যশিল্পী হবেন। মা শুরু করেন সেলাইয়ের কাজ। দিনরাত এক করে ছেলের লড়াইয়ে কাঁধে কাঁধ রেখে সামিল হন মা। ‘ডান্স বাংলা ডান্স’-এ সবাইকে চমকে দিয়ে হয়ে যান বিজয়ী।

সম্প্রতি ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে রুবেল তার মায়ের সেই কষ্টের দিনগুলিকে সবার সামনে গর্বের সাথে তুলে ধরেন। রুবেলের মা বলেন, ছেলের স্বপ্ন পূর্ণ করতে লোকের বাড়িতে রান্নাও করেছেন তিনি এমনকি আয়ার কাজও করতে হয়েছে তাকে। মায়ের ওই কথা শুনে সকলের সামনেই নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি রুবেল। মাকে জড়িয়ে কেঁদে ফেলেন অভিনেতা। বলেন, “যে সময়ে বাবার পাশে থাকার কথা ছিল তাকে পাইনি। মা যেভাবে আমাকে আর দাদাকে মানুষ করেছে আমি ভুলবো না। সব মায়েদেরই বলিদান থাকে তবে আমার মা একটু বেশি করেছেন”। এই অভাব কখনো রুবেলের স্বপ্ন পূরণে বাধা হয়ে দাঁড়াতে দেয়নি তার মা। রুবেলের জীবনের এই কঠিন সময়ের গল্প উৎসাহিত করবে আরো হাজার হাজার রুবেলকে।

Back to top button