এত ডাক্তার থাকতে অসুখ সারাবে ছেলের প্রাক্তন প্রেমিকা! নতুন ধারাবাহিক আসতেই কটাক্ষের শিকার মিঠিঝোরা!

কিছুদিন আগেই জি বাংলায় (Zee Bangla) শুরু হয়েছে মিঠিঝোড়া (Mithi Jhora)। মাত্র কয়েকটা দিনের মধ্যেই দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছে ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা। এই ধারাবাহিকের গল্প আর পাঁচটা ধারাবাহিকের তুলনায় অনেকটাই আলাদা এবং কিছুটা বাস্তবসম্মত। গল্পের শুরুতে হঠাৎ করেই মারা যায় নায়িকা রাইয়ের বাবা।

এই ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী, নায়িকা নিজের বাবার মৃত্যুতে নিজেকে অনেকটা শক্ত করে গড়ে তোলার চেষ্টা করে কারণ এরপর তার বোন এবং গোটা পরিবারের দায়িত্ব তাকেই নিতে হবে। সে যদি বিয়ে করে নেয় তাহলে তার পরিবার ভেসে যাবে। তাই বিয়ে না করে নিজের হবু বরের সাথে নিজের বোনের বিয়ে দিয়ে মা এবং আর এক বোনকে দেখার সিদ্ধান্ত নেওয়ার মধ্যে দিয়ে শুরু হয় ধারাবাহিকের গল্প।

একটি মেয়ের এমন সাহসিকতার পরিচয় পেয়ে দর্শকরা এই ধারাবাহিকের প্রতি বেশ আগ্রহী হয়ে উঠেছিলেন। সত্যিই এভাবে কজন ভাবতে পারে? নায়িকা রায়ের প্রতি সম্মান বেড়ে গিয়েছিল ভক্তদের। তবে সম্প্রতি এই মেগা যে গল্প সম্প্রচার করছে তাতে দিন দিন হাসির খোরাক হয়ে উঠছে মিঠি ঝোড়া। বাস্তবতাকে একেবারে বিসর্জন দিয়েছে এই ধারাবাহিক।

সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো ভিডিও সম্প্রচারিত হয়েছে। এখানে দেখা যাচ্ছে, হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েছে ধারাবাহিকের নায়ক সৌর্যের বাবা। তার অসুস্থতার জন্য দোষ দেওয়া হচ্ছে নায়িকা রাইয়ের বোন নীলুকে। সেই নাকি ভুল ওষুধ খাইয়ে অসুস্থ করে দিয়েছে তাকে। তখন নায়কের বাবা বলে, আগেরবার রায় যেমন তাকে ওষুধ খাইয়ে সুস্থ করে দিয়েছিল এইবারও সেই পারবে তাকে সুস্থ করতে। তাই রায়কে ডাকতে চলে যায় নায়কের মা। সেই ডাকে বোনের শ্বশুরবাড়িতে চলেও আসে রাই।

এই প্রোমো দেখার পর থেকেই হাসির রোল উঠেছে দর্শক মহলে। মানুষ অসুস্থ হলে সাধারনত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অথবা বাড়িতে ডাক্তার ডাকা হয়। কিন্তু এখানে সেসবের বালাই নেই। এখানে সুস্থ হতে গেলে ছেলের প্রাক্তন প্রেমিকাকে ডেকে এনে তার হাতে ওষুধ খেতে হয়। এটা দেখে দর্শকরা বুঝতে পারেন ধারাবাহিকের বাস্তববাদী চিন্তাভাবনার ভীষণই অভাব আর সেখান থেকেই চরম সমালোচনা শুরু হয় এই মেগাকে ঘিরে।

Back to top button