আশীর্বাদের দিন শাড়িতে আগুন প্রিয়াংকার! বিপদ বুঝে সরে গেল পরাগ, নিজের জীবন বিপন্ন করে প্রিয়াঙ্কাকে বাঁচালো শিমুল!

একজন প্রকৃত ভালো মানুষ নিজের আশেপাশের আর পাঁচটা মানুষকেও বদলে দিতে সক্ষম। দেরিতে হলেও সেই মানুষটির মর্ম ঠিক বোঝে বাকিরা। আর ঠিক এমনটাই হলো জি বাংলার (Zee Bangla) কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha) ধারাবাহিকে। চরম বিপদে পড়ে মানুষ চিনতে পারল প্রিয়া।

ধারাবাহিকের বর্তমান গল্প অনুযায়ী, ডিভোর্সের পর এখন প্রিয়ার সঙ্গে নতুন করে সংসার তৈরি করতে ব্যস্ত পরাগ। ইতিমধ্যেই বিয়ের সম্বন্ধ নিয়ে পরাগের বাড়িতে চলে এসেছে প্রিয়ার মা। ঠিক হয়ে গিয়েছে আশীর্বাদের দিনক্ষণ। এখন আর মাত্র কটা দিনের অপেক্ষা।

শিমুলের উপস্থিতি আর কেউ মেনে নিতে পারছে না। কিছুদিন বাদেই বিয়ে হয়ে যাবে পরাগের। শিমুল ঠিক করে সে এই বাড়ি ছেড়ে চলে যাবে। তবে যাওয়ার আগে শিমুল আর প্রিয়ার চার হাত এক করে দিয়ে যাবে। আর এর মাঝেই ঘটে গেল এক বড় অঘটন।

আরো পড়ুন: ইশার প্ল্যান মাটি করে ফটোগ্রাফার জোগাড় করে ফেলল পর্ণা, জিনিয়ার ওপর রেগে গিয়ে পিকলুকে মনের কথা বলে ফেলল বর্ষা!

সম্প্রতি কার কাছে কই মনের কথা ধারাবাহিকে একটি নতুন প্রোমো ভিডিও সম্প্রচারিত হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, আশীর্বাদের জন্য মধুবালার হাতে উপহারের বাক্স তুলে দিচ্ছে শিমুল। পরাগ শিমুলের উপস্থিতির ঘোর বিরোধিতা জানায়। তখন মধুবালা বলে, “তুমি হিরে ছেড়ে কাঁচ তুলে নিচ্ছ।”

শিমুল নিজের ব্যাগ নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেয় এমন সময় শাড়িতে আগুন লেগে যায় প্রিয়াঙ্কার। বিপদ বুঝে নিজেকে বাঁচাতে পাশ থেকে সরে যায় পরাগ। কিন্তু শিমুল ছুটে এসে সেই আগুন নেভায়। এমন কান্ড দেখে অবাক হয়ে যায় প্রিয়া। সে বলে, “তুমি আমার প্রাণ বাঁচালে?” শিমুল বলে, তার মনুষ্যত্ব এখনো মরে যায়নি।

Back to top button