শিমুলকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দিল পরাগ! মধুবালা পরিবর্তন হলেও আবার শিমুলের উপর অত্যাচার পরাগের!

এই মুহূর্তে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে যে সমস্ত ধারাবাহিক গুলি সম্প্রচারিত হচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। সমাজের বাস্তব দিকগুলিকে প্রতিটি পর্বে তুলে ধরছে এই ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে।

এ দিনের পর্বে দেখা যায় শিমুলের শাশুড়ি মা মধুবালা এবং তার সমস্ত প্রতিবেশী বন্ধুরা মিলে হই হুল্লোড় করে ঘুড়ি ওড়ায় আর সেখানেই শিমুল তার শাশুড়ি মাকে তুমি বলে সম্বোধন করে ফেলে। তারপর তার শাশুড়ি মা তাকে ভালোবেসে বলে এবার থেকে যেন তুমিই ডাকা হয় এই শুনে খুব খুশি হয়ে যায় বিপাশা সুচরিতারা।

এরপর দেখা যায় শিমুল পুতুলদির চুল বেঁধে দিচ্ছে। আর সেই সময় ঘরে আসে সেগুলো শাশুড়ি মা। মধুবালা এসে শিমুলের সাথে একটু আলাদা করে কথা বলতে চায়। কিন্তু পুতুল বলে সে ওই ঘর থেকে যাবে না। তাই পুতুলের সামনেই কথাগুলো বলা শুরু করে মধুবালা। সে শিমুলকে বলে এইবার শিমুল যেন তার স্বামীর সঙ্গে সবকিছু মিটমাট করে দেয়।

শিমুল তার শাশুড়ি মা কে আরও একবার কারণগুলো বললে মধুবালা বলে শিমুল যেন একটু মানিয়ে গুছিয়ে নেয়। শিমুল তাকে ঘুরিয়ে প্রশ্ন করে, তিনি তো মানিয়ে নিয়েছিলেন তার স্বামীর সাথে, তার স্বামী কি বদলে ছিলেন একটুও? মধুবালা তার উত্তরে না বলে আর এটাও বলে তার কাছে সেই সুযোগ ছিল না কিন্তু শিমুলের কাছে সেই সুযোগ আছে। শাশুড়ি মায়ের কথা রাখতে পুতুল দির ঘর ছেড়ে নিজের স্বামীর ঘরে গিয়ে থাকতে রাজি হয়ে যায় সে।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে শিমুল পরাগকে বলছে, “এই তোমার শিক্ষা? এই তুমি একজন শিক্ষক? তোমার স্টুডেন্টদের তুমি এই শিক্ষা দাও?” এই শুনে পরাগ শিমুলকে বলে, “অনেক লেকচার শুনেছি, এবার চলো” এই বলে ধাক্কা মেরে বিছানায় ফেলে দেয় শিমুলকে, আর খাটের কোনায় লেগে মাথা ফেটে যায় শিমুলের। চিৎকার করে ওঠে শিমুল।

Back to top button