“টাকা নেওয়ায় তোমার কোনো হাত নেই তো মা”, শিমুলের পরে এবার মধুবালাকে চরম অপমান পরাগের!

জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। বর্তমানে বেঙ্গল টপার হয়েছে এই মেগা। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী, ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলকে মারার চেষ্টা করলেও পরাগ আর পলাশের প্ল্যান সফল হয়নি। সুস্থ হয়ে এবার জীবনের পাঁচ লক্ষ টাকা দাবি করে শিমুল। পাশাপাশি পরাগের প্রতি মাসে নাইনের অর্ধেকটা। টাকাটা সে কেন চাইছে সেটা কাউকেই বলেনি শিমুল।

ধারাবাহিকের এদিনের পর্বে দেখা যায়, শিমুল সেই ৫ লক্ষ টাকা নিজের জন্য নেয়নি। সবাই ভেবেছিল সে নিজের আখের গোছানোর জন্য ওই টাকাটা পরাগের থেকে নিয়েছে। কিন্তু এমনটা নয়, টাকাটা নেওয়ার পেছনে শিমুলের উদ্দেশ্য ছিল অত্যন্ত মহৎ।

শিমুল পুতুলের চিকিৎসার জন্য এবং ভবিষ্যতে তার বিয়ের জন্য সে টাকাটা পরাগের থেকে নেয়। এতে পরাগকে শাস্তিও দেওয়া হল অন্যদিকে সেই শাস্তি স্বরূপ নেওয়া টাকা দিয়ে পুতুল দির সাহায্যও করা হলো। শিমুল এই কথাগুলো বলতে বারণ করেছিল পুতুলকে কিন্তু শিমুলের এত অপমান সহ্য করতে না পেরে সে সবার সামনে সব সত্যিটা বলে দেয়।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, শিমুলের হয়ে কথা বলায় পরাগ তার মাকে বলে, “তোমায় তো দুশো তিনশো টাকা দিলেই কেনা যায় মা।” নিজের ছেলের কাছ থেকে কখনো এরকম কথা শুনতে হবে সেটা স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি মধুবালা। নিজের মাকে কেউ এমন ভাবে কথা শোনাতে পারে দেখে বেশ অবাক হচ্ছে শিমুলও।

Back to top button