এগিয়ে গেলো গল্প! বড় হয়ে গেলো পর্ণার মেয়ে, ধারাবাহিকে প্রবেশ করলো জনপ্রিয় ক্ষুদে শিল্পী!

জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ধারাবাহিকে আসতে চলেছে এক নতুন মোড়। ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকটি বেঙ্গল টপার এর জায়গা দখল করে বসে রয়েছে। তবে এরপর ধারাবাহিকে যে গল্প আসতে চলেছে তা এই ধারাবাহিকটিতে একেবারে নতুন মাত্রা যোগ করবে। এতদিন দর্শকদের সন্ধে মাতিয়ে রেখেছিল এই ধারাবাহিকের নায়িকা পর্ণা। এবার অতি শীঘ্রই নায়িকার সাথে আসতে চলেছে তার কন্যা সন্তান।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা বর্তমানে গর্ভবতী। এর মধ্যেই সে নিজের ভাই পিকলুকে বাঁচানোর জন্য ছদ্মবেশে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দৌড়ে গিয়েছে সুন্দরবন। তবে এই বিপদ থেকে তারা খুব তাড়াতাড়ি মুক্তি পাবে। কারণ কিছুদিন আগেই এই ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো ভিডিও সম্প্রচারিত হয়েছে যেখানে দেখা গিয়েছে, সুস্থ স্বাভাবিক একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছে ধারাবাহিকের নায়িকা পর্ণা।

তবে এখানেই হয়ে গিয়েছে একটি গন্ডগোল। কৃষ্ণা অর্থাৎ ধারাবাহিকের নায়ক সৃজন এর মা চেয়েছিল তার ঘরে একটা নাতি আসুক। কিন্তু তার সেই ইচ্ছে পূরণ হয়নি। তাই কৃষ্ণা তার নাতনির মুখ দেখেনি। এতদিন সে প্রচণ্ড অপছন্দ করতো পর্ণাকে। মেয়ে হওয়ায় সেই অপছন্দ আরও ১০ গুণ বেড়ে গিয়েছে। তবে পর্ণার মেয়েকে সাদরে গ্রহণ করে নিয়েছে গোটা দত্তবাড়ি।

যত দূর জানা যাচ্ছে, খুব তাড়াতাড়ি নিম ফুলের মধু ধারাবাহিকের গল্প এক ধাক্কায় এগিয়ে যেতে চলেছে বেশ কয়েক বছর। যেখানে দেখা যাবে, বড় হয়ে গিয়েছে পর্ণার মেয়ে। সে আবার মায়ের থেকেও অনেক বেশি তারকাটা। পর্ণার সন্তানকে দিয়ে পর্ণাকে জব্দ করতে গিয়ে এবার নিজেই জব্দ হয়ে যাচ্ছে কৃষ্ণা। এত মিষ্টি একটা বাচ্চা পেয়ে ভীষণ খুশি সৃজন। ঘরের লক্ষী হয়ে এসেছে সে।

আরো পড়ুন: নিলুর কা’রসা’জি ধরে ফেলল ডোরা! স্রোতের কলেজ না আসায় নিজের ভুল বুঝতে পারলো সার্থক! বস থেকে শিক্ষক হয়ে উঠল অনির্বাণ!

দর্শকরা হয়তো বুঝতেই পেরেছিলেন কন্যা সন্তানের জন্ম দিতে চলেছে পর্ণা। তাই তাদের মনে একটা প্রশ্ন বারবার ঘুরপাক খাচ্ছিল। পর্ণার মেয়ে হয়ে কোন জনপ্রিয় ক্ষুদে শিল্পী আসতে চলেছে ধারাবাহিকের পর্দায়? এখনো অবধি চ্যানেলের তরফ থেকে সেই বিষয়ে কোনো পূর্বাভাস দেওয়া হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে খুব তাড়াতাড়ি ধারাবাহিকের আসন্ন প্রোমোয় সেই ক্ষুদে অভিনেত্রীর পরিচয় প্রকাশ পাবে ভক্তদের কাছে।

Back to top button