বেড়েই চলেছে দূরত্ব, শেষ বেলাতেও ভুল বোঝাবুঝি! একে অপরের থেকে আলাদা হবেই মেঘ নীল!

দুই বোন এবং তাদের এক ভালবাসার মানুষের গল্প নিয়ে শুরু হয়েছিল জি বাংলার (Zee Bangla) চ্যানেলের ইচ্ছে পুতুল (Ichhe Putul)। শুরু থেকে অন্য ধারাবাহিকের কপি বলে অনেক সমালোচনার শিকার হয়েছে এই মেগা। গল্প চুরি করার দোষ আরোপ করা হলেও দমে যায়নি ইচ্ছে পুতুল। নিজেদের সুন্দর প্লট এবং আকর্ষণীয় গল্প দিয়ে দর্শকদের সমস্ত অভিযোগ উধাও করে দিয়েছে এই ধারাবাহিক।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, একে অপরের থেকে অনেক দূরে রয়েছে নীল আর মেঘ। বিচারক তাদের ছমাস একসাথে থাকতে বললেও তারা একসাথে না থেকে নিজেদের মতন নিজেদের ঠিকানায় দিন যাপন করছে এবং একে অপরের অনুপস্থিতি অনুভব করে কষ্ট পাচ্ছে। কিন্তু আর খুব বেশিদিন এই বিরহ সহ্য করতে হবে না তাদের। খুব তাড়াতাড়ি মুখোমুখি হতে চলেছে ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা। একে অপরকে সামনে দেখার পর তারা ঠিক কি করে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, মধুমিতা মেঘকে বোঝায়, “সারা জীবন একা থাকা যায় না। তুমি যাকে ভালোবাসো তার সঙ্গে তোমাকে থাকতেই হবে, নইলে তুমি কখনোই ভালো থাকবে না। সব সময় আমি আর তোমার বাপি থাকবো না। তখন তোমাকে কে ভালবাসবে? কে যত্ন করে আগলে রাখবে? কে দিন শেষে জিজ্ঞাসা করবে মেঘ তুমি ঠিক আছো তো? তোমাকে একটা রাস্তা বেছে নিতেই হবে। যদি তুমি নিজের সাথে থাকতে না চাও তাহলে তুমি যাকে পছন্দ করবে তার সাথেই থাকো, না হলে আমরা পছন্দ করবো আমরা সিদ্ধান্ত নেব।”

এরপর কাঁদতে কাঁদতে ঘরে চলে যায় মেঘ। ভীষণ ভেঙ্গে পড়েছে সে কারণ নীলকে ছাড়া নিজের জীবনে অন্য কারোর কথা কখনো ভাবতেও পারেনি মেঘ। কিন্তু আজ তার মা যেই কথাগুলো বলল তাতে এক বর্ণ মিথ্যে ছিল না। মেঘ কি করবে কিছুই বুঝতে পারে না কারণ নীল নিজে তার সঙ্গে আর থাকতে চায় না। ঠিক এমন সময় মেঘের ফোনটা বেজে ওঠে। সে দেখে তাকে ফোন করেছে নীল। প্রথম কলটা রিসিভ না করলেও দ্বিতীয় কলটা রিসিভ করে সে।

ফোনটা ধরে মেঘ বলে, প্রথম কলটা ধরতে ধরতেই কেটে গেল। নীল পেপারে মেঘের ব্যাপারেই পড়ছিল। সদ্য বাংলাদেশ থেকে ফিরেছে মেঘ। অনেক নাম ডাক হয়েছে তার। সব দেখে একবার মেঘের সাথে কথা বলতে খুব ইচ্ছে করল নীলের। কিন্তু এসব কথা আর কিছুই বলতে পারল না মেঘকে। তাদের মধ্যে কথোপকথন এমন ভাবে এগুলো যাতে করে মেঘের মনে হলো ডিভোর্সের তারিখটা মনে করিয়ে দেওয়ার জন্যই ফোনটা করেছে নীল। আবারো মান অভিমান নিয়েই তাদের কথোপকথন শেষ হলো। মাঝে আর একটা দিন। তারপরেই হয় চিরকালের মতন একসাথে থাকবে তারা আর নয় তো চিরকালের মতন আলাদা হয়ে যাবে একে অপরের থেকে।

Back to top button