জিতুর সাথে সম্পর্ক ভাঙার আসল কারণ নবনীতার পরকীয়া! তবে কি বিবাহ বিচ্ছেদের আসল কারণ এলো সামনে?

জিতু কামাল (Jeetu Kamal)নবনীতা দাসের (Nabanita Das) বিবাহ বিচ্ছেদের কথা প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই তাদের নিয়ে গুঞ্জনের শেষ নেই। প্রায় অনেকদিন হয়ে গেল জিতু-নবনীতার বিচ্ছেদের খবর সামনে এসেছে। যদিও তার প্রায় অনেকমাস আগে থেকেই তারা একে ওপরের থেকে আলাদা থাকছেন। যদিও বিচ্ছেদের জন্য বারবার জিতুর সঙ্গে শ্রাবন্তীর সম্পর্ককে দায়ী করা হয়েছিল। তবে এবার উঠে এলো এক চাঞ্চল্য তথ্য।

জিতু দোষী নন, সম্পর্ক ভাঙার যে দোষ জিতুর ওপর দাগা হচ্ছে তা সত্য নয়! এমনটাই কি বলতে চাইলেন তিনি? সম্প্রতি লন্ডনে কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের নতুন ছবির শুটিং করতে যায় জিতু কমল, তখন সঙ্গে নবনীতাও ছিল। শ্রাবন্তীর সঙ্গে জিতুকে ঘিরে এই বিচ্ছেদ সম্পর্কে অনেক কথা শোনা যায়। যা পরে লাইভে এসে নস্যাৎ করেন নবনীতা। পরিস্কার জানিয়ে দেন, শ্রাবন্তী এই ঘটনায় কোনওভাবেই দায়ী নয়।

এতদিন সম্পর্ক ভাঙার জন্য বারবার জিতু কামালকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হলেও এবার কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হল অভিনেত্রীকে। সামনে আসল নবনীতার প’র’কী’য়ার ঘটনা। নবনীতার বিশেষ বন্ধু স্নেহাল অধিকারীর সঙ্গেই নাকি তার প’র’কী’য়ার সম্পর্কে জড়িয়েছেন তিনি।

এই ঘটনা সামনে আসা মাত্রই সমালোচনার ঢেউ বয়ে যাচ্ছে অভিনেত্রীর ওপর দিয়ে। এই সবের মধ্যেই জিতু সামাজিক মাধ্যমে একটি পোস্ট করেন। জিতু লেখেন “আমি ভাবুক, ইচ্ছুক নই/ আমি প্রেমিক, বিকৃত নই/ আমি চিন্তন, চিরন্তন নই/ আমি সৃষ্টিশীল, সৃষ্টিকর্তা নই আমি দোষারোপ, দোষী নই…।”

তিনি দোষী নন! এমনটাই কি বার্তা দিতে চেয়েছেন অভিনেতা। তবে কি স্ত্রীর প’র’কী’য়ার ঘটনা লুকিয়ে রাখতে চেয়েছিলেন? এই প্রশ্ন বার বার দানা বাঁধছে অনুরাগীদের মনে। তবে এবার দর্শকেরা জিতুর পাশে দাঁড়িয়েছেন। সব কিছু ভুলে নিজের লক্ষে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ নিচ্ছেন।

Back to top button