মৌমিতার বস্তা পচা প্ল্যানে জল ঢেলে ক্যালেন্ডার শুটে সফল পর্ণা, অনুভবকে নিয়ে পর্ণা সৃজনের সম্পর্কে নতুন ভাঙ্গন ধরাবে ইশা!

অন্যায় হলে যদি তৎক্ষণাৎ তার বিচার হয় তাহলে সেই রকম গল্প খুব সহজেই মন জয় করে নেয় দর্শকদের। আর এই মুহূর্তে জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ঠিক তেমনি একটি ধারাবাহিক। এখানে অন্যায় খুব বেশিদিন নিজের রাজত্ব চালাতে পারে না।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা যে ক্যালেন্ডার শুটের পরিকল্পনা করেছিল অর্থাৎ শাড়ির কথার যে এক্সিবিশন হওয়ার কথা ছিল তার ফটোগ্রাফারকে ইশা প্ল্যানে করে সরিয়ে দেয়। ঠিক তখনই একেবারে দেব-দুতের মতো আবির্ভাব হয় জিনিয়ার দাদা এ কে।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, জিনিয়ার এই দাদা পর্ণা এবং রুচিরার পূর্ব পরিচিত। অর্থাৎ এরা প্রত্যেকেই কলেজের বন্ধু। আর এটাও জানা যায়, ইশা অনুভবকে প্রেম প্রস্তাব দিয়েছিল কিন্তু অনুভব সেটা গ্রহণ করেনি। এদিকে পর্ণা আর অনুভবের বন্ধুত্ব নিয়ে বেশ ইর্ষান্বিত সৃজন।

আরো পড়ুন:রূপ ময়ূরীর খেলা শেষ, আর অসুস্থতার ভান করেও পার পেলো না ময়ূরী! সকলের সামনেই পর্দা ফাঁস হলো তাদের!

ইশা এক্সিবিশনটা নষ্ট করতে না পারলেও অনুভবকে কাজে লাগিয়ে আবার কিছু একটা গন্ডগোল পাকানোর কথা পরিকল্পনা করতে থাকে। এইবার সে একাই নাকি সব নষ্ট করবে। এই বলে সবার জামা কাপড় নিজের ঘরে লুকিয়ে রাখে। কিন্তু সেটা জানতে পেরে যায় পর্ণা। আর হাতে নাতে ধরে ফেলে মৌমিতাকে।

এরপর শুরু হয় এক্সিবিশন। বারো মাসে প্রত্যেকটি পার্বণে সব রকমের পোশাকের সম্ভার নিয়ে শাড়ির কথা সফলভাবে ক্যালেন্ডার শুট শেষ করে। এইবারেও ইশার প্ল্যান মাঠে মারা যায়। মৌমিতারও বেশ ভাল মতই মুখ পোরে। সবাইকে টেক্কা দিয়ে নিজের বুদ্ধির জোরে আরো একবার জিতে গেল পর্ণা।

Back to top button