ইশার কথা শুনে নিল পর্ণা, মৌমিতার সাথে তার সমস্ত প্ল্যান জেনে গেল পার্ণা! এবার ইশার সমস্ত খেলা শেষ করবে সে

বেশ জমে উঠেছে জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ধারাবাহিক। রহস্য রোমাঞ্চ ভালোবাসা কৌতুক এসব কিছুর সংমিশ্রণ দেখতে পাওয়া যায় ধারাবাহিকের প্রত্যেকটি পর্বে। মাঝে গল্প একঘেয়ে হয়ে উঠলেও ধীরে ধীরে আবার নিজের রং দেখাতে শুরু করেছে এই মেগা। ফের একে একে দোষীদের শাস্তি দিচ্ছে ধারাবাহিকের নায়িকা। শুরু থেকেই তালিকার প্রথম পাঁচে অবস্থান করছে ধারাবাহিকের টিআরপি।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, একটি নতুন বিজনেস প্ল্যান করেছে ধারাবাহিকের নায়িকা। আর সেই প্ল্যান অনুযায়ী কাজও শুরু করে দিয়েছে সে। দত্ত বাড়িকে কাজে লাগিয়েই অর্থ উপার্জনের পথ বার করেছে সে। তার সামনে কেউ তার প্রশংসা না করলেও মনে মনে এমন অনেকেই এই আইডিয়ায় মুগ্ধ হয়েছে যারা তাকে পছন্দ করেনা। যেমন জেঠু। তবে তার কোন কাজকেই শান্তিপূর্ণভাবে করতে দেবে না এমনটাই প্রতিজ্ঞা করেছে ইশা আর এই ইশার সাথে হাত মিলিয়েছে ঘর শত্রু বিভীষণ মৌমিতা আর অয়ন।

ধারাবাহিকের এই দিনের পর্বে দেখা যায়, পর্ণার প্রথম অতিথিদের আতিথেয়তায় একটুও গাফিলতি হতে দেয়নি কেউ। প্রত্যেকে মন প্রাণ দিয়ে তাদের আপ্যায়ন করেছে। আর এই সব কিছুতে ভীষণ খুশি হয়েছে তারা। বরণ করে ভেতরে নিয়ে আসা থেকে শুরু করে তাদের বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষে বিয়ে দেওয়া এবং মজার মজার সব খাবার দাবার নিয়ে ভুরিভোজ করা। সবকিছু মিলেয়ে তাদের খুশি করতে দারুণভাবে সফল দত্ত পরিবার। কিন্তু এসব কিছু ঘেঁটে দিতে চায় মৌমিতা অয়ন।

ইশার সাথে পরিকল্পনা করে তারা একটা প্ল্যান বের করে। তারা ঠিক করে রাতের খাবারে জোলাপ মিশিয়ে দিয়ে সবাইকে হেনস্তা করবে। পর্ণা বিষয়টা আগের থেকেই আন্দাজ করতে পেরেছিল। একটা না একটা গন্ডগোল তো তারা ঘটাবেই এটা বুঝতে পেরে সে আগের থেকেই রান্নাঘরে ক্যামেরা লাগিয়ে এসেছিল। মৌমিতা যখনই তার কুকর্ম করে সবটাই ধরা পড়ে যায় সেই ক্যামেরায়। এরপর মৌমিতাকেই সেই জোলাপ মেশানো খাবার খাওয়ায় বর্ষার রুচিরা আর পর্ণা। অনিষ্ট ঘটাতে গিয়ে নিজেই অনেক বড় সমস্যায় পড়ে যায় মৌমিতা। তাতেও তারা চুপ করে থাকেনি, এত অপমানিত হওয়ার পরেও ফের নতুন প্ল্যান করতে উদ্যত হয় তারা।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, মৌমিতাকে ফোন করে ইশা। সে ফোন করছে দেখে অয়ন ফোনটা মৌমিতাকে দেয়। মৌমিতা কিছু বলার আগেই তার হাত থেকে ফোনটা নিয়ে নেয় পর্ণা আর স্পিকারে দেয়। ওপাস থেকে ইশা বলে ওঠে, ঠিকঠাক ভাবে জোলাপটা মেশানো হয়েছিল তো? এরপর ফোনটা কেটে দেয় পর্ণা। তারপর সে বলে, “আমি আগের থেকেই বুঝতে পেরেছিলাম এসবের পিছনে ইশা আছে। আর তোমরা ওর সাথেই হাত মিলিয়েছো। কিন্তু এবার এর ফল ওকে ভুগতে হবে।” কথাটা শুনে ভয় পেয়ে যায় মৌমিতা অয়ন।

Back to top button