নিজের ছেলের উপর চাপ পড়তেই ফিরে এলো পুরনো মধুবালা! শিমুলের কীর্তি শোনাতে তার মা বৌদিদের ডেকে পাঠালো শাশুড়ি!

জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। বর্তমানে বেঙ্গল টপার হয়েছে এই মেগা। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে। আবার আগের রূপে ফিরে এলো মধুবালা।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী বিষ খাওয়ানোর পরেও যখন শিমুল বেঁচে যায় তখন সে নিজের জীবনের দাম স্বরূপ ৫ লক্ষ টাকা দাবি করে। এর পাশাপাশি প্রতিমাসে পরাগকে তার মাইনের অর্ধেকটা তুলে দিতে হবে শিমুলের হাতে। এ দিনের পর্বে দেখা যায়, মধুবালা পরাগকে নিয়ে খুব চিন্তায় পড়ে আর শিমুলকে বলে এত টাকা কোথা থেকে দেবে পরাগ?

শিমুল বলে, তার টাকা চাই মানে চাই। কোথা থেকে দেবে সেটা তার ব্যাপার। এছাড়াও শিমুল বারবার একথা বলে, পরাগের কাছে এর থেকেও বেশি টাকা রয়েছে তাই যে টাকা সে চেয়েছে সেটা পরাগ দিতে পারবে। মধুবালা তাকে নানা রকম ভাবে বোঝানোর চেষ্টা করলেও শিমুল নিজের জেদে অনড়।

টাকাটা চাওয়ার পর থেকেই মধুবালার মধ্যে এক অদ্ভুত পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সে আর শিমুলকে আগের মতন করে ভালবাসছে না। কেমন যেন আগের রূপে ফিরে আসছে সে। তার ছেলে যে এত বড় অন্যায় করেছে এখন সেটা প্রায় ভুলতেই বসেছে মধুবালা।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, পরাগ যখন টাকাটা শিমুলকে দিতে যায় তখন মধুবালা পরাগকে বাধা দেয় আর বলে, এর একটা সাক্ষী থাকা দরকার। এই বলে সে শিমুলের মা এবং দুই বৌদিকে ডেকে পাঠায়। এইসবের মধ্যে যে শিমুল প্রচন্ড অস্বস্তিতে পড়ে যায় সেটাই স্বাভাবিক।

Back to top button