Kar Kache Koi Moner Kotha: “তুমি আর নাচ করতে যাবে না বৌমা”, ছেলের অসুস্থতা দেখে শিমুলকে আঁটকে দিল মধুবালা

জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে। চলতি সপ্তাহে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে এই ধারাবাহিকের নাম। যত দিন যাচ্ছে ধারাবাহিকটি আরও বেশি জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

শ্বশুরবাড়িতে সমস্ত অত্যাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করে নিজের প্রতি হওয়া অন্যায়ের যথোপযুক্ত জবাব দিয়ে বর্তমানে পরাগ পলাশ এবং পলাশের হবু স্ত্রী প্রতীক্ষার জীবনে কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে শিমুল। যেন তেন প্রকারের শিমুলের ক্ষতি উঠে পড়ে লেগেছে তারা।

এ দিনের পর্বে দেখা যায় প্রতীক্ষা তার হবু শাশুড়ি মা অর্থাৎ মধুবালার কাছে এসে শিমুলের নামে যা নয় তাই বলতে থাকে। তখন শিমুল প্রতীক্ষার করার সমস্ত কান্ড অর্থাৎ সে কিভাবে অনুলেখাকে কাজে লাগিয়ে শতদ্রুকে এই বাড়িতে পাঠিয়েছিল সেই সমস্ত কিছুই সবার সামনে ফাঁস করে দেয়।

শিমুলের এত বার বারন্ত একদমই সহ্য করতে পারছিল না তারা তাই, তিনজনে একটা প্ল্যান করে। সবাই মিলে ঠিক করে অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগেই শিমুলকে ফোন করে জানানো হবে পরাগের অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছে আর এটা শুনে শিমুলের নাচ করতে যাওয়া হবে না আর অন্যদিকে ডিএম ম্যামের কাছেও শিমুলের ফেসলক হবে।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে রেডি হয়ে বেরোনোর আগেই শিমুলকে ফোন করে পরাগের এক কলিগ। সে বলে পরাগের একটি অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছে এবং সে হাসপাতালে ভর্তি। এটা জানতে পেরে মধুবালা বলে পরাগ শিমুলের নাচ করাটাকে মেনে নিতে পারেনি তাই এমন অবস্থা হল। তিনি শিমুলকে বলেন, “তুমি আর কখনো নাচ করতে যেও না বৌমা।” এক নিমেষে শিমুলের সমস্ত স্বপ্ন ভেঙে গুঁড়িয়ে গেল। শিমুল কি পারবে সত্যিটা প্রমাণ করে নিজেকে দাঁড় করাতে? নাকি কিছু ছোট মানসিকতার মানুষের কুবুদ্ধির কাছে এভাবেই হেরে যাবে? এখন সেটাই দেখার পালা।

Back to top button