শিমুলের ওপর হওয়া অন্যায়ের প্রতিশোধ নিতে পরাগ, পলাশকে লাঠি দিয়ে পেটালো মধুবালা

জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে কার কাছে কই মনের কথা (Kar kache koi moner kotha)। ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুলের চরিত্রে রয়েছেন মানালি দে এবং নায়ক পরাগের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে দ্রোণ মুখোপাধ্যায়কে। ধারাবাহিকের বর্তমান এপিসোড গুলি এতটাই জমে উঠেছে যে, টিআরপি তালিকায় প্রথম পাঁচে স্থান করে নিয়েছে এই মেগা।

বাস্তব সর্বদাই ভয়ংকর। আর সেই ভয়ংকর বাস্তবে নারীরা এই পুরুষতান্ত্রিক সমাজে কতটা নিপীড়িত সেটাকে কেন্দ্র করেই শুরু হয়েছিল এই ধারাবাহিকটি। এই ধারাবাহিকটি শুরু হওয়ার পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতে লাঞ্ছনা গঞ্জনা সহ্য না করে তাদের প্রতিটি অন্যায়ের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দর্শকদের মনে এক আলাদা স্থান করে নিয়েছে ধারাবাহিকের নায়িকা শিমুল।

ধারাবাহিকের বর্তমান গল্প অনুযায়ী নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য নিজের গুনকে ব্যবহার করে কিছু একটা করার চেষ্টা করছে নায়িকা শিমুল। আর এই বিষয়টি কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না পরাগ এবং পলাশ। তার এই সাফল্য সহ্য করতে না পেরে তার স্বামী পরাগ মিথ্যে অসুস্থতার নাটক করে শিমুলকে আটকানোর চেষ্টা করে। যদিও শিমুলের অদম্য ইচ্ছাশক্তি তাকে বিজয়ী ঘোষণা করে।

ধারাবাহিকের এই দিনের পর্বে দেখা যায়, শিমুলের প্রতি অত্যন্ত ক্ষোভ থেকে পরাগ নিজের মায়ের সাথে দুর্ব্যবহার করে বোনের গায়ে হাত তুলতে যায় এবং স্ত্রীকে টানতে টানতে বাড়ি থেকে বার করে দিতে উদ্যত হয়। তখন মধুবালা পরাগ এবং পলাশকে স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, এই বাড়িতে থাকতে হলে তাদের দুজনকে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। তারা দুজন মিলে বাড়ির তিনটে মেয়েকে কোনভাবেই পায়ের নিচে পিষতে পারবে না।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে, নিজের রাগ সামলাতে করতে না পেরে লাঠি এনে শিমুলকে মারতে যায় পরাগ। ঠিক তখনই শিমুলের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ায় মধুবালা। পরাগের আনা লাঠি দিয়েই পরাগকে পেটাতে থাকে। তিনি বলেন যদি শিমুলের গায়ে একটাও আঁচর লেগেছে তিনি কাউকে ছেড়ে কথা বলবেন না। মায়ের এমন রুদ্র মূর্তি দেখে ভয় পেয়ে যায় পরাগ আর পলাশ।

Back to top button