অনেকেই বাস্তবের মিল পাচ্ছে ‘কার কাছে কই মনের কথা’র নতুন প্রোমোতে! বিয়ের পর দজ্জাল শাশুড়ির জন্য নিজের সব কিছু দিতে হচ্ছে শিমুলকে

গতকাল শুরু হয়েছে জি-বাংলার নতুন ধারাবাহিক ‘কার কাছে কই মনের কথা’। শুরুতেই মানুষের বেশ পছন্দ হয়েছে এই ধারাবাহিকটিকে। এটি এমন একটি ধারাবাহিক যেখানে চার নারীর জীবনে নিয়ে গল্প বুনবে। ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন অভিনেত্রী মানালি দে, অভিনেত্রী বাসবদত্তা, স্নেহা এবং কুয়াশা।

ধারাবাহিকের প্রোমো আসার পর থেকেই ধারাবাহিকের গল্প নিয়ে কৌতূহল ছিল সিরিয়াল প্রেমীদের। ধারাবাহিকের প্রোমো দেখেই অনেকে বুঝেছিলেন ধারাবাহিক খুব সুন্দর হতে চলেছে। দর্শকদের সেই আশায় জল ঢালেননি লেখিকা। প্রথমদিনই ধারাবাহিকের গল্প দর্শকের মন জয় করে নিল এই ধারাবাহিক।

ধারাবাহিকের প্রথমদিন দেখা গিয়েছে গল্পের নায়িকা শিমুল (মানালি) বাবা মারা যাওয়ার পর থেকেই দাদাদের সংসারে থাকে। দাদাদের সাথে খুব একটা সুখে নেই সে। ধীরে ধীরে সেখানে সকলের বোঝা হয়ে উঠেছে। তার দাদা তার বিয়ে দিতে পারলে বাঁচে। শিমূল জানে না বিয়ের পর সে আদৌ তার শখ পূরণ করতে পারবে কিনা?

এদিকে নায়ক এর মা চায় তার মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ের দেখাশুনোর জন্য সর্বক্ষণের একটা লোক থাকুক। আর তাই জন্যই তিনি ঠিক করেছেন ছেলের বিয়ে দেবেন। গল্পে দেখানো হয় শিমূলের হবু শাশুড়ি ভীষণ কিপটে। এরকম একটা পরিবারে কীভাবে সংসার সামলাবে শিমূল? সেটা দেখা যাবে গল্পের আগামী দিনে।

সম্প্রতি ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো সম্প্রচারিত হয়। এখানে দেখানো হয় বিয়ে হয়ে শ্বশুরবাড়িতে এসেছে শিমুল সেখানে তাকে দেখে তার শাশুড়ি বলছে দুই দাদা চাকরি করে, বাবা পেনশন পায় তারপরেও বোনকে কেমন খালি হতে পাঠিয়েছে দেখো। শিমুল যে শাড়িগুলো পেয়েছে সেগুলো আত্মীয়-স্বজনকে দেবে বলে তুলে নেয় শিমুলের শাশুড়ি। তার বাবা তার স্বামীর জন্য যে ঘড়িটি দিয়েছিলেন সেটা অন্যকেউ নিতে চাওয়ায় শিমুল আটকায় আর সেই দেখে গর্জন করে ওঠে শিমুলের শাশুড়ি। বাস্তবে মেয়েদের বিয়ের পর কিছুটা এমন চিত্রই ধরা পড়ে, প্রতিটি মধ্যবিত্ত পরিবারে। বাস্তবকে খুব সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলেছে এই ধারাবাহিক। তাই শুরুতেই দর্শকদের প্রশংসা করেছে কার কাছে কই মনের কথা।

Back to top button