পর্ণার বুদ্ধিতে কু’পো’কা’ত মিস্টার এক্স, খোঁজ খবর নিতেই এক্সের সামনে বেরিয়ে এলো পর্ণার আসল পরিচয়!

আরো একবার বুদ্ধিতে বাজিমাত করল জি বাংলার (Zee Bangla) নিম ফুলের মধু (Neem Fuler Modhu) ধারাবাহিকের নায়িকা পর্ণা। এই ধারাবাহিকের নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রী পল্লবী শর্মাকে। প্রথম থেকেই তার অভিনয়ে আপ্লুত ছিলেন দর্শক মহল। যতদিন যাচ্ছে প্রত্যেকটি চরিত্র এমন ভাবে তিনি ফুটিয়ে তুলছেন যাতে এক কথায় বাকরুদ্ধ হয়ে যাচ্ছেন ভক্তরা। এই মুহূর্তে ধারাবাহিকের টিআরপি একেবারে তুঙ্গে। টিআরপি টপার এর জায়গা দখল করে বসে রয়েছে এই মেগা।

বর্তমান গল্প অনুযায়ী, পর্ণা আর সৃজন খুঁজতে খুঁজতে ঠিকই পৌঁছে গিয়েছে পিকলুর কাছে। সেখানে গিয়ে পর্ণা বুঝতে পারে এই বিপদের হাত থেকে বাঁচতে গেলে একটাই উপায় রয়েছে। আর সেটা হল কোন না কোন ভাবে তাদেরকে পালাতে হবে সেখান থেকে। আর তারা তখনই পালাতে পারবে যখন মিস্টার এক্স এর নজর এড়াতে পারবে। আর সেটা করতে গেলে মিস্টার এক্সকে অন্যদিকে ঘুরিয়ে দিতে হবে। সেই সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে তাকে সবাইকে নিয়ে সেখান থেকে অনেক দূরে কোথাও পালিয়ে যেতে হবে।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, পর্ণার কথা মতন সৃজন আর পিকলু নিজেদের মধ্যে ঝামেলা করা শুরু করে দেয়। আর অন্যদিকে গাড়িতে ড্রাগস লোড হতে থাকে। সৃজন আর পিকলুর ঝামেলা শুনে সেখানে চলে যায় মিস্টার এক্স। সেখানে গিয়ে সে জানতে পারে পিকলু নাকি নেশা করার চেষ্টা করছিল আর সৃজন তাকে আটকাচ্ছিল। তাদের এই ঝামেলা থামাতে থামাতে মিস্টার এক্স এর অনেকটা সময় কেটে যায়। উল্টোদিকে পর্ণা কুমড়ো গুলো সরাতে থাকে।

তিনটা কুমড়ো সে একাই সরিয়ে নেয়, চার নাম্বার কুমড়োটা সরানোর সময় পা পিছলে পড়ে যাচ্ছিল পর্ণা। যার ফলে সে হালকা চিৎকার করে ওঠে। যেটা শুনে ফেলে মিস্টার এক্স। পর্ণা লুকানোর জন্য তাড়াতাড়ি গাড়ির নিচে ঢুকে যায়। এরপর মিস্টার এক্স এসে সব জায়গা ভালো করে খোঁজে কিন্তু কোথাও কাউকে পায় না কারণ পর্ণা খুব লুকিয়ে লুকিয়ে গাড়ির পিছন থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল। মিস্টার এক তখন নিমাই কাকাকে তাড়াতাড়ি গাড়িটা নিয়ে জায়গা মত জিনিসগুলো পৌঁছে দিতে বলে।

আরো পড়ুন: দ্বিতীয় বিয়ের জন্য ম্যারেজ রেজিষ্টার বুক সৌরভের! “ম্যাডামকে সামলে নেবো”, দাদার কথায় হতবাক ভক্তরা

পরের দিন পর্ণা সবার জন্য ওই কুমড়ো কেটে কুমড়োর ছক্কা বানিয়ে ফেলেছে। তার হাতের রান্না খেয়ে সবাই প্রশংসায় পঞ্চমুখ। অনেকদিন পর বাড়ির রান্না খাচ্ছে তারা। এমন সময় মিস্টার এক্স জানতে পারে গাড়িতে তিনটে কুমড়ো কম ছিল। সঙ্গে সঙ্গে সবটা বুঝে যায় সে আর চলে আসে পর্ণার কাছে। সরাসরি তাকেই জিজ্ঞাসা করে যে কুমড়ো গুলো কোথায়? পর্ণা নির্ভীক ভাবে বলে, “আপনার যদি মনে হয় আমি নিয়েছি তাহলে খুঁজে দেখুন। এত বড় বড় কুমড়ো গুলো তো আর আমি কোথাও লুকিয়ে রাখতে পারব না।” কিন্তু বোকা মিস্টার এক্স বুঝতেও পারে না যে কুমড়ো গুলো ততক্ষণে সবার পেটে চলে গেছে। এরপর পর্ণার ব্যাপারে খোঁজ খবর চালায় মিস্টার এক্স।

Back to top button