কৌশিকীকে মারতে গিয়েই ধরা পড়ে গেল দেবু, অন্যদিকে স্বয়ম্ভুকে বাড়ি থেকে বের করে দিল তার পরিবার!

ধারাবাহিকের ছেলেদের অ্যাকশন সিন করতে বহুবার দেখেছেন দর্শকমহল। কিন্তু মেয়েরাও যে কিছু কম যায় না সেটাই বুঝিয়ে দিচ্ছে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে সম্প্রচারিত জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। অ্যাকশনে ভরপুর টানটান উত্তেজনাময় রহস্য পরিবেশন করছে এই মেগা। বর্তমানে টিআরপি তালিকায় বেশ ভালো জায়গা দখল করেছে জগদ্ধাত্রী।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী, স্বয়ম্ভুকে বাড়িতে ঢুকতে দিলো না তার পরিবারের লোকজন। সে বাড়ির সকলের নামে এফআইআর করেছে, এটা মেনে নিতে পারেনি কেউই। তাই স্বয়ম্ভুকে তার অধিকার থেকে বঞ্চিত করল উৎসব, মেহেন্দি, বৈদেহি, চন্দ্রবদন প্রত্যেকে।

তবে যাওয়ার আগে সে বলে যায়, কৌশকি মুখার্জীও একদিন সুস্থ হয়ে উঠবে আর জগদ্ধাত্রীও ফিরে আসবে। সেদিন সে সবাইকে এই অপবাদের উচিত জবাব দেবে। এটা শুনেই বেশ ভয় পেয়ে যায় প্রত্যেকে। দেবু তখন তড়িঘড়ি একজন ওয়ার্ড বয়কে কল করে কৌশিকীকে মেরে ফেলার অর্ডার দেয়।

সেই লোকটা তখন কৌশিকীর স্যালাইনে বিষ মিশিয়ে দেয় এবং দেবুকে জানিয়ে দেয় কাজ হয়ে গেছে। তখনই নার্সের পোশাক পরে সেখানে চলে আসে জগদ্ধাত্রী আর তাড়াতাড়ি স্যালাইনটা বদলে দিয়ে একটা অন্য স্যালাইন লাগায়। এরপর ওই ছেলেটির গালে চড় মারে জ্যাস। আবারো সেই ছেলেটিকে ফোন করে দেব আর ফোনটা ধরে জগদ্ধাত্রী।

জগদ্ধাত্রী বলে, “তুমি ধরা পড়ে গেছো দেবুদা।” দেবু বুঝতে পারেনা কে কথা বলছে। তাই বাগচীকে দিয়ে খোঁজ করানোর চেষ্টা করে। তখন উৎসব বলে এত চিন্তা না করতে সে সব সামলে নেবে। অন্যদিকে জগদ্ধাত্রীর দায়িত্ববোধ দেখে তারিফ করে মেনন। বোঝাই যাচ্ছে আর খুব বেশি দিন পায়ের উপর পা তুলে বসে থাকতে পারবেনা অন্যায়কারীরা।

Back to top button