দমকা হাওয়ায় উড়ে গেল ওড়না, অনিকেতের সামনে বেরিয়ে পড়ল তিস্তার আসল চেহারা!

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলের একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিকে পরিণত হয়েছে নবাগত ধারাবাহিক কোন গোপনে মন ভেসেছে (Kon Gopone Mon Bhesechhe)। শুরু হওয়ার পর থেকেই নায়ক নায়িকার রসায়ন মন জয় করে নিয়েছে দর্শকদের। এই ধারাবাহিকে নায়িকার চরিত্রে রয়েছেন শ্বেতা ভট্টাচার্য এবং নায়ক হিসেবে অভিনয় করছেন রনজয় বিষ্নু। প্রথম ঝলকেই সাড়া ফেলেছে এই নতুন জুটি।

ধারাবাহিকের বর্তমান গল্প অনুযায়ী, দুই প্রান্তে থাকা দুটি মানুষ বর্তমানে বাধা পড়েছে বিবাহ বন্ধনে। কিছুটা অনিচ্ছাকৃত হলেও নিজের মাকে বাঁচাতে ধারাবাহিকের নায়িকা শ্যামলীকে বিয়ে করতে হয় অনিকেতকে। কিন্তু শ্যামলীকে কখনোই নিজের স্ত্রী হিসেবে মেনে নিতে পারেনি অনিকেত। কিন্তু তাই বলে কখনো শ্যামলীর অসম্মান করেনি সে।

শ্যামলীর সাথে অনিকেতকে একেবারেই সহ্য করতে পারে না অপরাজিতা অর্থাৎ অনিকেতের মা। তাই শ্যামলীকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বলে সে। সেখান থেকে চলেও যায় শ্যামলী। কিন্তু অনিকেতের বিপদে ঠিক ছুটে আসে নায়িকা। স্বয়ং মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করে তার স্বামীকে। এই মুহূর্তে শ্যামলীর ননদ তাকে তিস্তা নাম দিয়ে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে দেয়। যেখানে ওড়নায় মুখ ঢাকার শ্যামলীর একটি ছবি দেখে মুগ্ধ হয়ে যায় অনিকেত।

ধারাবাহিকের আগামীর পর্বে দেখা যাবে, অনিকেত একটা ফুলের তোড়া নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে পার্কে। সে অপেক্ষা করছে তিস্তার জন্য। তিস্তার চোখের প্রেমে পড়েছে সে। আর এটাই তাদের প্রথম সাক্ষাৎকার। মনে মনে তিস্তার কথাই ভাবতে থাকে অনিকেত। ঠিক তখনই একটা হলুদ চুরিদার পরে মুখে হলুদ ওড়না ঢাকা দিয়ে সেখানে চলে এসেছে শ্যামলী।

আরও পড়ুনঃ দারুন টুইস্ট দিয়ে শেষ হলো ইচ্ছে পুতুল, শেষ পর্ব চোখে জল আনলো দর্শকদের!

অনিকেত তিস্তাকে জিজ্ঞাসা করে সে এভাবে মুখ চাপা দিয়ে কেন এসেছে? সে কি তার মুখ দেখাতে চায় না? শ্যামলী তখন বলে, “আপনি আমার আসল চেহারাটা সহ্য করতে পারবেন না।” কথাটা ফুরতে না ফুরাতেই একটা দমকা হাওয়া দেয়, আর সাথে সাথে শ্যামলীর মুখ থেকে ওড়নাটা উড়ে যায়। শ্যামলী অর্থাৎ তিস্তা তখন নিজের দুই হাত দিয়ে মুখ ঢেকে নেয়। অনিকেত তখন বলে, “আমি আপনাকে জোর করব না, আপনি যতদিন না চাইছেন আমি আপনার মুখ দেখবো না।” এরপর নিজেই ওড়নাটাকে নিয়ে ঘোমটার মতন করে শ্যামলীর মাথায় দিয়ে দেয়। গোটা ঘটনাটা খুব ভালো লাগে শ্যামলীর।

Back to top button