অর্থ উপার্জনের জন্য দালালি করেছেন টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা, একের পর এক জনপ্রিয় সিনেমার নায়ক হয়েও এই অবস্থা!

একটা সময় টলি পাড়ার অতি চেনা মুখ ছিলেন লোকেশ ঘোষ (Lokesh Ghosh)। একাধিক হিট ছবিতে (Bangla Cinema) অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু এখন আর তেমন ভাবে অভিনয় জগতে দেখা যায় না তাঁকে। তবে মাচা শো অবশ্যই করেন তিনি। আর সম্প্রতি একটি শোতে গান গেয়ে কটাক্ষের শিকারও হয়েছিলেন তিনি। তবে ৯০ এর দশকে তার অভিনীত চলচ্চিত্র গুলি জায়গা করে নিয়েছিল দর্শকদের মনে। এক সংবাদ মাধ্যমের কাছে অকপটে নিজের জীবনের অনেক কাহিনী শেয়ার করলেন এই কালজয়ী অভিনেতা।

অভিনয় জীবনের শুরুটা কেমন ছিল তার? অভিনেতা লোকেশ ঘোষ বললেন, “একদম শুরুতে আমি অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর ছিলাম। বেশ কিছু ছবির অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেছি আমি। তারপর কলকাতায় চলে আসি। এর আগেও একটা ঘটনা আছে সেটা হল ক্লাস নাইনে আমার মা আর বাবার মধ্যে ডিভোর্স হয়ে যায়। তারপর আমি আমার বাবাকে বলেছিলাম যে আমি যা করব নিজের দমে করব। কথাটা হয়তো ওনার ইগোতে লেগেছিল। তারপর থেকে যেখানেই কাজ করতে গিয়েছি বা খুঁজতে গিয়েছি উনি সব সময় বলে দিতেন আমাকে যেন কাজ না দেওয়া হয়। এক সময় লরির দালালি অব্দি করেছি আমি।”

জীবনে প্রথম ছবি কি আর সেখানে ঢোকার সূত্রপাত্তা কিভাবে হয়? অভিনেতা বললেন, “আমার গুরু হচ্ছেন সাংবাদিক বিজয় রায় উনি আমায় এই দিকটা সম্পর্কে পরিচিত করিয়েছেন। আমি তখন আমার ছবি নিয়ে বিভিন্ন প্রোডাকশনের কাছে ঘুরে বেড়াচ্ছি। সেই সময় আমি বাংলা প্রোডাকশন হাউজের অন্য রূপ দেখেছি, কেউ আমায় কাজে নিতে চাইতো না। সেই সময় আমার গুরু বিজয় রায় আমাকে অঞ্জন বাবুর কাছে নিয়ে যান। তার তখন দুটো ছবি চলছিল একটা মুখ্যমন্ত্রী আর একটা নাচ নাগিনী নাচ। মুখ্যমন্ত্রীতে তখন সমস্ত চরিত্রদের ঠিক করা হয়ে গিয়েছিল। ছবির লীডে ছিলেন বুম্বাদা তাই ওখানে আর আমার জায়গা হয়নি। নাচ নাগিনী নাচে আমি অভিনয় করব এমনটাই ঠিক হয়েছিল। হঠাৎ একদিন অঞ্জন বাবু আমার ডেকে বলেন বুম্বাদা কোন ভাবে তার মুখ্যমন্ত্রী সিনেমাটা করতে পারবেন না। তখনই সেই জায়গায় আমায় কাস্ট করা হয়।”

প্রথম ছবির পর আর ঘুরে থাকাতে হয়নি তাকে। তাহলে হঠাৎ অভিনয় জগত থেকে বিরতী কেন? তিনি জানান, “প্রথম ছবির পর বেশ কয়েক বছর আমি সত্যি ভীষণ ভালো কাজ করেছি অনেক কাজ পেয়েছি চুটিয়ে অভিনয় করেছি। কিন্তু তারপরেই আমার বাবা মারা যান। তো তার জন্য আমাকে বম্বে যেতে হয়। আমার বাবার প্রায় কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তি ছিল সেই সবই আমার দিদি নিজের নামে লিখে নেয়। বোম্বে থেকে ফিরতে ফিরতে চার বছর কেটে যায় আর এসে আমি বুঝতে পারি আমার পায়ের তলার জমি সরে গিয়েছে।”

Woman files complaint against Tollywood actor Lokesh Ghosh
নিজেকে আবার আগের জায়গায় ফিরিয়ে আনতে কতটা স্ট্রাগল করতে হয়েছিল? অভিনেতা বলেন, “সেই জমি আমি আজও শক্ত করতে পারিনি। মাঝে আমি দার্জিলিং চলে গিয়েছিলাম সেখানে আমি একটি হোটেল খুলি। দার্জিলিং আমার খুব পছন্দের জায়গা আমার আবেগের জায়গা। কিন্তু সেখানে গিয়েও আমি খুব একটা লাভ করতে পারিনি। আমার জীবনে এমন অনেক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে কিছুটা আমার নিজের কারণে কিছুটা আমার পারিবারিক কারণে যেগুলো আমার এগুলোর পথে অনেক বাধা সৃষ্টি করেছে।”

Back to top button