ফাদার্সডে তে এবার প্রথম নিজের বাবার মুখোমুখি রূপা, তার ছোট্ট মনের ইচ্ছে কি পূরণ করবে সূর্য নাকি আবারও বঞ্চিত হবে বাবার আদর থেকে?

এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো অনুরাগের ছোঁয়া। মাঝে টিআরপি-তে সাময়িকভাবে স্থানচ্যুত হলেও আবার নিজের ফিরে এসেছে এই ধারাবাহিক। স্টার জলসার অন্যান্য সব ধারাবাহিকের জুটিগুলির মধ্যে অনুরাগের ছোঁয়ার সুদীপা জুটি দর্শকদের মনে অনেকটা জায়গা করে নিয়েছে।

বর্তমানে সূর্য আর দীপার মাঝে চলছে মান অভিমানের পর্ব। যদিও বিষয়গুলি মান অভিমানকে নস্যাৎ করে এখন মিথ্যে জেদে পরিণত হয়েছে। সূর্য ক্রমাগত ভুল বুঝে যাচ্ছে দীপাকে, আর অন্ধের মতন বিশ্বাস করে চলেছে মিশকাকে। বাড়ির প্রত্যেকে বিরক্ত তার ওপর। দর্শকদেরও মন উঠে গেছে তার উপর থেকে। কিছু না করেও প্রতিদিন সূর্যের কাছে অপদস্ত, অপমানিত হচ্ছে দীপা। তার এমন দুরাবস্থা আর দেখতে পাচ্ছেন না ভক্তরা।

আর এইসবের মাঝখানে পড়ে গিয়েছে সূর্য দীপার দুই মেয়ে সোনা রুপা। প্রতিদিন যে মেয়েটা বাবা থেকেও না থাকার কষ্ট পেয়ে চলেছে সে হলো রুপা। সম্প্রতি রুপার জানতে পেরেছে তার বাবার আসল পরিচয়। তারপর থেকে রুপার কষ্ট যেন আরো দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছে। সে বাবাকে চোখের সামনে দেখতে পেলেও তাকে বাবা বলে ডাকার অধিকার তার নেই।

এদিনের পর্বে দেখানো হয় সূর্যের দেওয়া টেডি বেয়ারটা নিয়ে বসে আছে রুপা। সামনে পড়ার বই খোলা। একটা ডাইরি হাতে তুলে নিল রুপা। সেই ডাইরিটার একটা পাতায় একটা ডেট লেখা, তার পাশে লেখা ফাদার্স ডে। খাতার দিকে তাকিয়ে নিজের বাবার কথা মনে পড়ে গেল রুপার। আবার ভরে উঠলো রুপার মন।

রূপা মনে মনে বললো, আগে সে জানতোনা রুপার বাবা কে। কিন্তু এখন রুপা জানে তার বাবার পরিচয়। সে তার বাবাকে চিনতে পেরেছে। এই প্রথম রুপা তার বাবাকে ফাদার্স ডে উইশ করবে। কিন্তু রুপা এটা করতে পারবে তো? এই ফাদর্স ডে-তে কি পূরণ হবে রুপার মনের ইচ্ছে? নাকি এমন একটা দিনেও হতাশ হতে হবে তাকে, এখন সেটাই দেখার বিষয়।

Back to top button