সিংহাসনের লোভে জগদ্ধাত্রীকে রাস্তা থেকে সরিয়ে দিল উৎসব! তাকে সাহায্য করল দেবু

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে যে সমস্ত ধারাবাহিকগুলি সম্প্রচারিত হয় তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি হলো জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। ধারাবাহিকের মূল আকর্ষণ হচ্ছে নায়িকা জগদ্ধাত্রী। এই ধারাবাহিকটি মূলত অ্যাকশন কেন্দ্রিক। এই ধারাবাহিকের নায়িকা আর পাঁচটা নায়িকার মতন শান্তশিষ্ট লক্ষী মন্ত মেয়েটি নয়, সে একজন সফল পুলিশ অফিসার তথা অ্যাকশন কুইন। কোনো অপরাধী তার চোখে ফাঁকি দিতে পারে না।

এদিন পর্বের শুরুতেই দেখা যায় লিলিপুট জগদ্ধাত্রীকে বলছে যে জগদ্ধাত্রী কিছুই প্রমাণ করতে পারবে না। এই শুনে লিলিপুটকে ভীষণ মারধর করতে থাকে জগদ্ধাত্রী। এরপর টিটু বাধা দিতে এলে জগদ্ধাত্রী বলে একবার হাতে প্রমাণ গুলো চলে এলেই সবকটাকে শেষ করে দেবে সে এই শুনে ভয় পেয়ে যায় টিটু। সাধুদা জগদ্ধাত্রীকে মাথা ঠান্ডা করে কাজ করতে বলে।

অন্যদিকে বাজি হেরে যায় উৎসব। কথা ছিল নিজেকে যোগ্য প্রমাণ করলে সিংহাসনে বসবে সে। প্রথমে উৎসব ভেবেছিল সে অসাধ্য সাধন করেছে কিন্তু তারপর কৌশিকী সবাইকে সব সত্যিটা জানায়। যে বিজনেসম্যানের সঙ্গে উৎসব ডিল করতে গেছিল তার সাথে উৎসব যে ব্যবহার করেছে তাতে অত্যন্ত রেগে গিয়েছেন তিনি পরবর্তীতে স্বয়ম্ভু পুরো বিষয়টাকে সামলায় এবং নিজের যোগ্যতার পরিচয় দেয়।

বাবার উপর চিৎকার করলে রাজনাথ উৎসবকে ধমক দেয় তখন জগদ্ধাত্রী এসে উৎসবের গালে ঠাস করে একটা চড় বসিয়ে দেওয়ার কথা বললে জগদ্ধাত্রীর ওপরও চিৎকার করে ওঠে উৎসব। এরপর স্বয়ম্ভুকে উৎসব দু টাকার গানওয়ালীর ছেলে বলে অপমান করলে রাজনাথের সহ্যের সীমা পেরিয়ে যায় এবং উৎসবের গালে সপাটে এক চড় মারেন তিনি।

এরপর দেবু উৎসবকে আলাদা করে ডেকে নিয়ে গিয়ে কিছু কু পরামর্শ দেয়। উৎসব বলে একটুর জন্য টার্গেট মিস হয়ে যায় নইলে আজ স্বয়ম্ভু থাকত না। তখন দেবু উৎসবকে বোঝায় যে জগদ্ধাত্রী হলো কৌশিকী মুখার্জির ডান হাত আর স্বয়ম্ভু মুখার্জির শিরদাঁড়া। একবার যদি জগদ্ধাত্রীকে সরিয়ে দেওয়া যায় তাহলে কেল্লাফতে। উৎসব দেবুর পরামর্শে সম্মতি জানায়। তবে কি এবার জগদ্ধাত্রীকে শেষ করে দেবে উৎসব?

Back to top button