সন্ধ্যাতারার নতুন প্রোমো, আকাশ আর সন্ধ্যা মুখোমুখি, মনেরমানুষ কেমন হয় জানলো সন্ধ্যা, দুই বোনের মধ্যে কার ভাগ্যে রয়েছে আকাশনীল?

স্টার জলসার একটি সদ্য শুরু হওয়া ধারাবাহিক হলো সন্ধ্যা তারা। দুই বোনের সম্পর্ক নিয়ে এবার দর্শকদের মাঝে ফিরেছেন ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকের ‘ঊর্মি’ অর্থাৎ অন্বেষা হাজরা। ইতিমধ্যেই তাঁর সাবলীল অভিনয় দর্শকের মন কেড়েছে। এবার স্টার জলসার নতুন ধারাবাহিক ‘সন্ধ্যাতারা’তে তাঁকে দেখা যাচ্ছে নতুন রূপে। দুই বোনের ভালবাসা আর তাঁদের আত্মত্যাগের গল্প বলবে ‘সন্ধ্যাতারা’।

‘সন্ধ্যাতারা’র গল্পটি এই রকম, পরিবারের মেজো মেয়ে সন্ধ্যা ছোট মেয়ে তারা। তাদের একটি বড় বোনও রয়েছে। বড় বোন থাকলেও পরিবারের স্তম্ভ হল সন্ধ্যা। একজন নারী হয়েও সেই যেন বাড়ির পুরুষটি। বাবা চলে যাবার পর সংসারের সব দায়িত্বই সে নিজের কাঁধে তুলে নেয়। সন্ধ্যা মনপ্রাণ দিয়ে ভালবাসে তার পরিবারকে, সবার জন্য হাজার পরিশ্রম করেও তাঁর মুখে হাসি কখনও ম্লান হয়ে যায় না।

সবার সুখেই সুখ তার। আর বোন তারাকে চোখে হারায় সে। তারাও দিদি-অন্ত প্রাণ। তারার কাছে সে মা, বাবা, বোন, বন্ধু সব। বোনের জন্য সারাদিন মুখে রক্ত তুলে খাটে সন্ধ্যা, বোন যাতে ভালোভাবে পড়াশোনা করতে পারে তার কোন রকম ত্রুটি হতে দেয়নি সে। অন্যদিকে দিদির কষ্টকে প্রতি মুহূর্তে মন থেকে অনুভব করে তারা।

ত্রিকোণ প্রেম নয়, সম্পর্কই এখানে প্রধান। মিষ্টি প্রেম পাশাপাশি প্রিয়জনের খুশির জন্য স্বার্থত্যাগ এটাই মূল উপজীব্য, তাই দুই নারী এবং এক পুরুষের এক সম্পর্কের এক নতুন সমীকরণের দেখা মিলবে ধারাবাহিকটিতে। সবচেয়ে উল্লেখনীয় হল এই ধারবাহিকে তথাকথিত কোনও নেগেটিভ রোল বা ভিলেন নেই। বরং পরিস্থিতিকেই কখনও কখনও ভিলেনে পরিণত হতে দেখা যাবে এই গল্পে।

সম্প্রতি ধারাবাহিক একটি নতুন প্রোমো প্রকাশ পেয়েছে যেখানে দেখা গিয়েছে নিজের মনের মানুষের ছবি হাতে পেয়েছে সন্ধ্যা। সারাদিন সেই ছবির দিকে চেয়ে চেয়ে দিন কাটছে তার। বোঝা যাচ্ছে একটু একটু করে ভালোবাসা জন্মাচ্ছে সন্ধ্যার মনে। পরবর্তী ঝলকে দেখা যায় তার সেই মনের মানুষটি তার নাম ধরে ডাকছে, আর পিছন ঘুরে সন্ধ্যা দেখতে পায় তাকে। এবার কোন দিকে মোর নেবে সন্ধ্যা তারার জীবন?

Back to top button