মই বেয়ে ফুলকির ঘরে গিয়ে মিষ্টি খাইয়ে দিলো রোহিত, ডিভোর্সের কেস তুলে নিল নায়িকা!

একেবারে অন্যরকম এক ভালোবাসার গল্প পরিবেশন করছে জি বাংলার (Zee Bangla) ‘ফুলকি’ (Phulki)। ধারাবাহিকটি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে কারণ এই মেগার নায়িকা খুব প্রাণোচ্ছল আর অত্যন্ত দক্ষ। দর্শকদের প্রিয় হয়ে উঠেছে এই ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকার জুটি। টিআরপিতেও সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে এই মেগা।

বর্তমানে এই ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী, ফুলকি চেষ্টা করেছে রোহিতের মন জিতে নেওয়ার কিন্তু রোহিতের দোটানা মনোভাব বার বার ফুলকির মনে কষ্ট দিয়েছে। তাই ফুলকি চেষ্টা করছে রোহিতকে মুক্তি দেওয়ার। ইতিমধ্যে ডিভোর্স ফাইল করেছে ফুলকি। কিন্তু তাতে সই করতে নারাজ রোহিত। তখন ফুলকি রোহিতকে তার এবং শালিনীর মধ্যে একজনকে বেছে নিতে বলে। রোহিত এর কোনো সুরাহা করতে পারে না।

ধারাবাহিকের আজকের পর্বে দেখা যায়, রোহিতের কথা মতো ফুলকিকে নিয়ে রেস্টুরেন্টে চলে এসেছে অংশুমান। আর সেখানেই ফুলকি মুখোমুখি হয় রোহিত আর শালিনীর। ওরা দুজনে একসাথে এসেছে দেখে খুব কষ্ট হয় ফুলকির। ওদের একসাথে নাচ করতে দেখে চোখে জল চলে আসে তার। এই গোটা বিষয়টাই অংশুর থেকে কোনক্রমে লুকিয়ে যায় সে।

এর পর অনেক খাবার অর্ডার দেয় অংশু। আর ঠিক তখনই রোহিত তার সামনে এসে বলে, এত খাবার এই মুহূর্তে খাওয়াটা কি ঠিক হবে? সামনেই তো ম্যাচ। ফুলকি তখন কিছুই না খেয়ে চলে যায়। রোহিতের আর কথা বলা হয়না ফুলকির সাথে। সে মনে মনে ভাবে, এটা একদম ঠিক হলো না। খুব খারাপ হলো। তখন শালিনী রোহিতকে জিজ্ঞেস করে, তার সারপ্রাইজটা কেমন লাগলো? রোহিত বলে ভালো। এরপর বিয়ের প্রসঙ্গ তুললে রোহিত শালিনীকে বলে, সে এখন এতো তাড়াহুড়ো করতে চায় না। যখন সময় আসবে তখন সব হবে।

এরপর ফুলকি বাড়ি ফিরে ঘরে ঢুকে কান্নাকাটি করতে থাকে আর ভাবতে থাকে সে তো নিজেই ডিভোর্স দিতে চায়। তাহলে তার এত কষ্ট কেনো হচ্ছে? এটা ঠিক হচ্ছে না। তখন সেখানে চলে আসে রোহিত। সে ফুলকির জন্য এক হাঁড়ি রসগোল্লা নিয়ে আসে আর মই বেয়ে ফুলকির ঘরে যায়। এসব দেখে ভীষণ রাগ হয় শালিনীর। সে বুঝে উঠতে পারে না ফুলকি দাস এমন কি যাদু করলো রোহিতের উপর। এদিকে রোহিত নিজের হাতে ফুলকি মিষ্টি খাইয়ে দেয়। এই দৃশ্য এসে দেখে নেয় পারমিতা, ধানু। দুজনকেই ভীষণ বকে পারমিতা। দুজনেই চুপ হয়ে যায় কিছু বলতে পারে না।

Back to top button