সবকিছুর মূলে রয়েছে রাজনাথ, সমস্তটা ধরে ফেলল স্বয়ম্ভু, কাঁকনের পাশে এসে দাঁড়ালো মেনন!

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলে যে সমস্ত ধারাবাহিকগুলি সম্প্রচারিত হয় তার মধ্যে সব থেকে জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি হল জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। ধারাবাহিকের নায়কের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে সৌম্যদীপ মুখার্জি, এবং নায়িকার ভূমিকার অভিনয় করছেন অঙ্কিতা মল্লিক। গত সপ্তাহেও বেঙ্গল টপারের স্থান দখল করেছে এই মেগা।

ধারাবাহিকের বর্তমান প্লট অনুযায়ী, গুন্ডাদের সাথে লড়াই করতে করতে অনেক বড় বিপদে পড়ে যায় জগদ্ধাত্রী। বন্দুকের নিশানায় আসা মাত্রই তাকে সরিয়ে দিয়ে নিজে গুলি বিদ্ধ হয় কৌশিকী মুখার্জী। এখন এই কাজটা কে করেছে সেটাই খুঁজে বার করতে উঠে পড়ে লেগেছে স্বয়ম্ভু।

ধারাবাহিকের এই দিনের পর্বে দেখা যায়, গোটা বিষয়টা নিয়ে খুব ভয় পেয়ে গিয়েছে দেবু আর উৎসব। দেবু উৎসবকে বলে এখন এইসব কিছু থেকে বাঁচার একটাই রাস্তা আর সেটা হলো স্বয়ম্ভুকে মেরে ফেলা। নইলে স্বয়ম্ভু ঠিক সবটা খুঁজে বের করবে। অন্যদিকে রাজনাথ চলে যায় কৌশিকীর কেবিনে।

কৌশিকীর সামনে বসে রাজনাথ বলে, “সব সময় চেয়ার দখল করে রাখলে তো চলবে না কারণ সেখানে আমার ছেলে বৌমারও অধিকার আছে। আমি বলেছিলাম একটা পানিশমেন্ট এর কথা আর এটাই তার পানিশমেন্ট।” তখনই ঘরে চলে আসে স্বয়ম্ভু। সে রাজনাথকে বলে, “আপনি উর্মিলা মুখার্জীর স্বামী তো এখন আমার সন্দেহ হয়।”

এদিকে মেনান এর কাছে খুব কান্নাকাটি করতে থাকে কাঁকন। মেনান তাকে কথা দেয় সে দোষীদের শাস্তি দিতে সাহায্য করবে। এরপর সে স্বয়ম্ভুকে হসপিটালের ল্যান্ডলাইন থেকে ফোন করে বলে, তার কাছে সমস্ত প্রমাণ আছে আর সঠিক সময় সে সব প্রমাণ পাঠিয়ে দেবে। একদিকে স্বয়ম্ভুর কাছে খুলে গেল রাজনাথের মুখোশ, অন্যদিকে জগদ্ধাত্রীও বুঝতে পারছে আসল কালপ্রিট কে। এবার শুধু দুজনের এক হওয়ার পালা।

Back to top button