লাবণ্য সেনগুপ্তকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে বিজয়া মাঠানের চরিত্র! ক্রমে সন্ধ্যাতারা ধারাবাহিকের মূল আকর্ষণ হয়ে উঠছেন তিনি

খুব বেশিদিন হয়নি, স্টার জলসা (Star jalsha) শুরু হয়েছে এক নতুন ধারাবাহিক সন্ধ্যা তারা (Sondhya Tara)। শুরুতে টিআরপিতে তেমন ভালো ফল করতে না পারলেও ধীরে ধীরে ধারাবাহিকের চরিত্রগুলি জায়গা করে নিচ্ছে দর্শকদের মনে। প্রথমে সন্ধ্যা এবং তারা এই দুই বোনের ভালোবাসা মন কেড়ে নিয়েছিল দর্শকদের। আর এইবার সন্ধ্যার শাশুড়ি অর্থাৎ মাঠান চরিত্রটি দিন দিন গেঁথে যাচ্ছে মানুষের মনে।

সন্ধ্যাতারার মূল গল্প দুই বোনকে কেন্দ্র করে

এই ধারাবাহিকের গল্পের মূল ভিত্তি ছিল দুই বোনের একে অপরের প্রতি ভালোবাসা। এবং প্রয়োজনে নিজের সবচেয়ে ভালোবাসার মানুষটিকেও বোনের জন্য বলিদান দেওয়া। যেটা কখনোই কোন মানুষ কল্পনাতেও আনতে পারে না, সেটাই করে দেখিয়েছে, ধারাবাহিকের আরেক নায়িকা তারা।

বিয়ে হচ্ছিল না নিজের দিদির। তার জন্য যে বেশ কষ্ট পাচ্ছিল সন্ধ্যা সেটা খুব ভালো করেই বুঝতে পেরেছিল তারা। বহুদিন কেটে যাওয়ার পর যখন নিজের দিদির কাউকে পছন্দ হয় তখন আনন্দের নেচে উঠেছিল তারার মন। কিন্তু সেই সব আনন্দ নিমেষে ভেঙ্গে যায় যখন সে দেখতে পায় তার ভালোবাসার মানুষটিকে পছন্দ করেছে সন্ধ্যা। কিন্তু না, তার জন্য তার দিদির প্রতি একটুও ভালোবাসা কমেনি তার। উল্টে নিজের ভালোবাসার মানুষটিকে দিদির জন্য ছেড়ে দিয়েছে সে। এর মাঝেই আরো একটি চরিত্র নজর কেড়েছে দর্শকদের আর সেটি হল সন্ধ্যার শাশুড়ি অর্থাৎ মাঠান।

দর্শকরা পছন্দ করেছেন মাঠানের চরিত্র

দর্শকদের মতে বর্তমানে সম্পূর্ণ চ্যানেলে যে সমস্ত সিরিয়াল গুলি সম্প্রচারিত হচ্ছে তার মধ্যে সবথেকে সুন্দর চরিত্র হচ্ছে এই মাঠান। একটি মেয়ে ঠিক যেমন হওয়া উচিত সেই সমস্ত গুণ রয়েছে তার মধ্যে। মা হোক বা বউ অথবা বৌমা বা শাশুড়ি, এই প্রত্যেকটি দিক থেকে একেবারেই নিখুঁত এবং নিটল চরিত্র হচ্ছে এই মাঠান। তার মধ্যে খুঁত খুঁজে পাওয়া অসম্ভব।

এই নিয়ে তাকে অনেকেই স্টার জলসার অন্য এক ধারাবাহিক অনুরাগের ছোঁয়ায় দীপার শাশুড়ি লাবণের সঙ্গে তুলনা করলেও সেই তুলনাতেও অগ্রাধিকার পেয়েছে মাঠান। দর্শকদের মধ্যে লাবণের মধ্যেও অনেক ভুলভ্রান্তি রয়েছে। তবে এই মাঠান চরিত্রটি একেবারেই ত্রুটিহীন। এই মুহূর্তে সন্ধ্যা তারার প্রধান আকর্ষণ এই মাঠান।

Back to top button