অন্য সিরিয়ালে কত সুন্দর শাশুড়ি বৌমার সম্পর্ক কিন্তু লীনা গাঙ্গুলির সিরিয়ালে সেই সম্পর্ক অত্যন্ত তিক্ত! কেন এমন প্রশ্ন দর্শকের

বাংলার মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন তথা বিভিন্ন বাংলা চ্যানেলের সিরিয়ালের (Bengali Serial) গল্প লেখিকা হলেন লীনা গাঙ্গুলী (Leena Ganguly)। ইতিমধ্যেই একাধিক ধারাবাহিকে লেখিকার ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাকে। তার লেখা একাধিক গল্প ভীষণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে আবার বেশ কিছু গল্প একেবারেই ফ্লপ হয়েছে দর্শক মহলে।

এই লেখিকার ওপর অনেক সময় অনেক অভিযোগ উঠেছে। যেমন প্রতিটি ধারাবাহিক এই পরকীয়াকে মুখ্য করে তুলেছেন এই লেখিকা। আবার কখনো শাশুড়ি বৌমার মাঝে লাগিয়ে দিয়েছেন তুমুল ঝামেলা। যার প্রভাব ভীষণভাবে পরিলক্ষিত হয়েছে দর্শক মহলে। কারণ ধারাবাহিক সমাজেরই আয়না।

সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ‍্যমে সাম্প্রতিক বাংলা সিরিয়ালগুলির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলন বিপ্লব। তাঁর অভিযোগ লীনার বিরুদ্ধে। তাঁর দাবি, লীনা নিজে মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন। অথচ তাঁর সিরিয়ালগুলিতে মহিলাদের এক রকম অসম্মান করা হচ্ছে। এর জন‍্য লীনাকে গুলি করে মারা উচিত বলে মন্তব‍্য করেন ক্ষুব্ধ অভিনেতা। যদিও পরবর্তীতে তিনি ক্ষমাও চেয়েছেন। কিন্তু একদিক থেকে দেখতে গেলে তার সঙ্গে সহমত বহু ভক্ত।

তার লেখনীতে কখনোই শাশুড়ি বৌমা সুখী নয়। তাদের দুজনের মধ্যে চরম তিক্ততার সম্পর্ক বিরাজ করে। অন্যদিকে জলসার অনেক ধারাবাহিকে শাশুড়ি বৌমার মধ্যে সুন্দর সম্পর্ক দেখিয়ে একটি সুন্দর সামাজিক বার্তা দেওয়া হয়েছে। যেমন কমলা এবং শ্রীমান পৃথ্বীরাজে কমলার সঙ্গে তার দুই শাশুড়ির সম্পর্ক দেখলে সত্যিই চোখ জুড়িয়ে যায়।

অন্যদিকে লাবণ্যের সাথে দীপা এবং সন্ধ্যার সাথে তার নতুন শাশুড়ির সম্পর্ক একেবারেই অনবদ্য। এই ধারাবাহিক গুলি বরাবর চেষ্টা করে চলেছে সমাজে কিছু সম্পর্ককে আরো অনেক বেশি সুন্দর করে তোলার। যার লক্ষণ মাত্র লীনা গাঙ্গুলীর লেখনীতে পাওয়া যায় না। তিনি অনেক নামজাদা লেখিকা হলেও সুন্দর সম্পর্ক স্থাপনে তিনি অপারক এমনকি দাবি দর্শক মহলের।

Back to top button