তুষার তীর্থের হাত থেকে পেনড্রাইভ উদ্ধার করে তিন্নিকে দিয়ে দিল জ্যাস, অবশেষে বাবা ছেলের কুকীর্তি ফাঁস হল

বর্তমানে জি বাংলা (Zee Bangla) চ্যানেলের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি হল জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। টিআরপিতে চ্যানেল টপার এই ধারাবাহিক। শুরুর পর থেকেই নিজের আকর্ষণীয় গল্পের মধ্যে দিয়ে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছে ধারাবাহিকের নায়ক নায়িকা। এই ধারাবাহিকের মূল আকর্ষণ নায়িকা জগদ্ধাত্রী।

জগদ্ধাত্রীর সংগ্রাম

কিছুদিন আগে রীতিমত সংগ্রাম করে নিজের স্বামীকে মৃত্যুমুখ থেকে ফিরিয়ে এনেছে জগদ্ধাত্রী। শুধু তাই নয়, স্বয়ম্ভুকে যে বা যারা খুন করার চেষ্টা করেছিল তাদের প্রত্যেককে খুঁজে বার করেছে সে। কোন দুষ্কৃতি রক্ষা পায়নি জগদ্ধাত্রীদের হাত থেকে। নিজের পরিবারের সঙ্গে যুদ্ধ করে হলেও দোষীদের সে ঠিকই পাকড়াও করেছে।

পেনড্রাইভ খুঁজে পেল জগদ্ধাত্রী

এদিনের পর্বে জগদ্ধাত্রী এবং সাধু দা সার্চ করতে থাকে দিব্যার ঘর। সারা ঘর তল্লাশি নিয়ে কোথাও কিছু পায় না সে। এরপর একটি ফুলদানির কাছাকাছি আসতেই একটু চিন্তিত হয়ে পড়ে দিব্যা। জগদ্ধাত্রী বুঝে যায় পেনড্রাইভটা সেখানেই লুকিয়ে রেখেছে সে। অবশেষে পেনড্রাইভটা চলে আসে জগদ্ধাত্রী দখলে। অন্যদিকে তুষার দিব্যাকে ফোন করে পেনড্রাইভটা পাঠাতে বলে। কিন্তু দিব্যা কিছু না বলেই ফোন রেখে দেয়।

আর জগদ্ধাত্রী পেনড্রাইভটা নিয়ে সোজা আসে চলে যায় তুষার তলা পাত্রের কাছে। তুষার জগদ্ধাত্রীকে দেখে অবাক হয়ে যায়। জগদ্ধাত্রী একটু মজা করে বলে “আপনার জন্য দিব্যা সেন একটা পেনড্রাইভ পাঠিয়েছে”, উত্তেজিত হয়ে তুষার পেনড্রাইভটা নিয়ে খুলে দেখে সেখানে লেখা আছে বোকা বানানো হলো। তুষার তলা পাত্র জানতে পারে যে তার সমস্ত প্ল্যানে জল ঢেলে দিয়েছে জগদ্ধাত্রী। রাগে জ্বলতে থাকে তুষার।

তিন্নিকে চিন্তামুক্ত করল জগদ্ধাত্রী

পেনড্রাইভটা পেয়ে সোজা তিন্নির কাছে চলে গেল জগধাত্রী। গিয়ে তিন্নিকে বলল, “তোমার আর কোন চিন্তা নেই আসল পেনড্রাইভটা আমি পেয়ে গেছি। তোমার ছবিগুলো উদ্ধার করা গেছে।” সব শুনে আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায় তিন্নি। কারণ বহুদিন ধরে সেই এক টেনশনে সে না পেরেছে খেতে না পেরেছে ঘুমোতে আর না পেরেছে মন খুলে হাসতে। যাওয়ার আগে জগদ্ধাত্রী তিন্নিকে বলে, “আনন্দ করো মজা করো বন্ধু বান্ধবী বানাও তবে একটু দেখে শুনে চোখ কান খোলা রেখে। অনেক বড় একটা বিপদ হতে পারত।” তিন্নিকে আবার নতুন করে বাঁচার রসদ যোগালো জগদ্ধাত্রী।

Back to top button