প্রথম থেকে তিনে নেমেছে ‘জগদ্ধাত্রী’, ক্রমশ্য টিআরপি কমতে থাকায় কী প্রতিক্রিয়া জগদ্ধাত্রীর নায়ক ‘স্বয়ম্ভূ’ অভিনেতা সৌমদীপের

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘জগদ্ধাত্রী’। সম্প্রচার শুরুর প্রায় সাথে সাথেই সকলের নজর কেড়ে নিয়েছিল। 2022 সালে যখন চ্যানেলগুলিতে ধারাবাহিকের অর্থ পরকীয়া ও কূটকাচালী, সেই সময় এক সাধারণ মেয়ে জগদ্ধাত্রীর কাহিনীকে ঘিরে নির্মিত এই ধারাবাহিক দর্শকদের কাছে বয়ে এনেছিল অন্য স্বাদ।

পরবর্তীকালে দর্শকদের একটি বড় অংশ ‘জগদ্ধাত্রী’-র অনুরাগী হয়ে ওঠেন যখন দেখা যায় মেয়েটি আসলে জ্যাস স্যান্যাল নামে এক পুলিশ অফিসার। জ্যাসের অ্যাকশন সকলের ভালো লাগতে শুরু করে। ‘জগদ্ধাত্রী’ হয়ে ওঠে বেঙ্গল টপার। কিন্তু আচমকাই 2023 সালের মাঝামাঝি ‘জগদ্ধাত্রী’ পৌঁছে গিয়েছে তৃতীয় স্থানে।

এই সপ্তাহ ও গত সপ্তাহের, বৃহস্পতিবারের টিআরপি চার্টে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ‘জগদ্ধাত্রী’। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে এই ধারাবাহিকের টিআরপির পতন অনুরাগীদের কপালে ফেলেছে চিন্তার ভাঁজ। এইভাবে টিআরপি কমতে থাকলে খুব তাড়াতাড়ি স্লট হারাবে জগদ্ধাত্রী। প্রথম থেকে দ্বিতীয় দ্বিতীয় থেকে তৃতীয় স্থানে নেমে গিয়েছে ধারাবাহিকের অবস্থান। ঠিক কি কারনে ঘুরছে এমন, এবার এই নিয়ে মুখ খুললেন জগদ্ধাত্রী ধারাবাহিকের নায়ক।

এই প্রসঙ্গে ‘জগদ্ধাত্রী’-র নায়ক সৌম্যদীপ মুখোপাধ্যায় (Soumyadip Mukherjee) ওরফে স্বয়ম্ভূ জানালেন, তাঁদের কাজ অভিনয় করা। ফলে টিআরপি অভিনয়ের উপর প্রভাব ফেলে না। কিন্তু কোথাও ভুল থাকলে তাঁরা তা শুধরে নিতে চেষ্টা করেন। সকলে মিলেমিশে কাজ করেন। সেটে প্রায়ই ভালো খাবারদাবার আনিয়ে খাওয়া হয়।

ফলে মন ভালো হয়ে যায়। এই কারণে টিআরপি তাঁদের উপর প্রভাব ফেলতে পারে না। 2017 সাল থেকে ইন্ডাস্ট্রিতে পায়ের তলার মাটি শক্ত করার লড়াই চালাচ্ছেন সৌম্যদীপ। অবশেষে স্নেহাশিস চক্রবর্তী (Snehashish Chakraborty) নির্মিত ধারাবাহিক ‘ত্রিশূল’-এর মাধ্যমে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ ঘটে তাঁর। ফলে স্নেহাশিসকে নিজের অভিভাবকের মর্যাদা দিয়েছেন সৌম্যদীপ।

Back to top button