সূর্য চলে যাওয়ার জন্য লাবণ্যকে দায়ী করলো দীপা! সোনা জেনে গেল তার জন্ম রহস্য, জানুন টিভির আগেই অনুরাগের ছোঁয়ার দুর্ধর্ষ পর্ব

স্টার জলসার (Star Jalsha) জনপ্রিয় বাংলা সিরিয়াল (Bengali Serial) ‘অনুরাগের ছোঁয়া’য় (Anurager Chhowa) এখন রোজ হাইভোল্টেজ ড্রামা চলছে। সূর্য (Surjo)-দীপার (Deepa) ধারাবাহিকে রোজ কিছু না কিছু টুইস্ট আসছে। সেই শুরু থেকেই দর্শকদের মাতিয়ে রেখেছে এই ধারাবাহিকের প্লট। বর্তমানে ধারাবাহিকটি আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে সোনা আর রুপার জন্য।

এ দিনের পর্বে ধরা পড়ে যায় মিশকার সব কারসাজি। দীপার দাদা বৌদি সবার সামনে ফাঁস করে দেয় সেই নকল মা বাবার আসল পরিচয়। দীপা আর লাবণ্য সোনাকে নিতে এলে সোনা কিছুতেই বাড়ি ফিরতে চায় না। তখন রুপা সোনাকে বলে সে যদি দরজা না খুলে দেয় তাহলে বাবার মতো সেও অনেক দূরে চলে যাবে।

এরপর বাধ্য হয়েই দরজা খোলে সোনা আর তারপর সবাই মিলে সোনার নকল বাবা-মার থেকে আসল কাণ্ডগুলো স্বীকার করিয়ে নেয়। এসব শোনার পর আরো বেশি ভেঙে পড়ে সোনা। সে বলে তাকে সবাই মিথ্যে বলেছে সবাই মিথ্যেবাদী সে কারো কাছে থাকবে না। এই বলে ছুটে ঘর থেকে বেরিয়ে যায় সে। তখন তাকে আটকায় রুপা কিন্তু সোনা কারোর কোন কথা শুনতে চায় না।

রুপা আর চুপ থাকতে পারে না। সে সব সত্যি সোনাকে বলে দেয়। রুপা বলে দেয় তার বাবা মা-ই সোনার বাবা-মা। সেই জন্যই তাদের একই দিনে জন্ম। তারা দুজন জমজ বোন। এই কথাটা তাদের বাবা জানেনা কারণ দিদিভাই অর্থাৎ লাবণ্য সেনগুপ্ত জানতে দেয়নি। সব শোনার পর সোনা, আরো বেশি পাগলামি শুরু করে। সে লাবণ্যকে জিজ্ঞেস করে কেন এমনটা করেছিল সে। লাবণ্য কি চাইত না যে সোনাও তার মায়ের কাছে থাকুক?

সবশেষে অনেক বুঝিয়ে সোনাকে সাথে করে নিয়ে যায় রুপা। সেই সময় লাবণ্য সেনগুপ্ত ভীষণ রেগে যায় মিশকার ওপর। তখন দীপা লাবণ্য সেনগুপ্তকে বলে, “মিশকা তো কোন ভুল কথা বলেনি, আজ সূর্যের চলে যাওয়ার পিছনে, তার ভুল বোঝার পিছনে কোন দায় কি এড়াতে পারবেন আপনি?” দীপার বলা কথাগুলো যথেষ্ট যুক্তিযুক্ত মনে হয় দর্শকদের। এই প্রথমবার দীপা লাবণ্য সেনগুপ্তর করা কোন কাজের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তুলল। দর্শকদের মতে এই কাজটা কিছুদিন আগে ঘটলে ঝামেলা হয়তো হতো কিন্তু আজকের মতন জীবন মরণ পরিস্থিতি তৈরি হতো না।

Back to top button