তিতিরকে মারতে চরম পদক্ষেপ নিল মালিনী! তবে কি এখানেই শেষ তিতিরের ভূমিকা?

অবশেষে তিতিরকে মেরে ফেলল মালিনী! শোকের ছায়া ধারাবাহিকের ভক্তদের মুখে

বর্তমানে বাংলার (Zee Bangla) পর্দায় সম্প্রচারিত একটি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হচ্ছে মন দিতে চাই (Mon dite chai)। ধারাবাহিকটি শুরু হওয়ার পর থেকেই বেশ নজর কেড়েছিল দর্শকদের। বর্তমানে ধারাবাহিকের নায়ক পড়েছে মহা বিপদে। আর সেই বিপদ থেকে তাকে রক্ষা করার চেষ্টা করে চলেছে নায়িকা তিতির। তবে নায়ককে রক্ষা করতে গিয়ে এবার নিজেই চরম বিপদে পড়লো সে।

সর্বক্ষণ ক্ষতি করার প্ল্যান কোষে যাচ্ছে সোমরাজের সৎ মা মালিনী। কখনো সোমরাজকে নিজের ছেলে হিসেবে গ্রহণ করতে পারেননি তিনি। যেটুকুনি লোক দেখানি করেছেন সবটাই সম্পত্তির লোভে। এতদিন ধরে নিজের হাতের পুতুল করে রেখেছিলেন তিনি সোমরাজকে। কিন্তু তিতির আসার পর থেকেই তার খেলা ওলট-পালট হয়ে গিয়েছে।

নিজের অধিকার বুঝে নিতে শুরু করেছে তিতির। সংসারটাকে আবার স্বাভাবিক ছন্দে ফেরাতে চায় সে। কিন্তু এই বিষয়টা একদম পছন্দ করছেন না মালিনী। বহুবার তিনি বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছেন তিতিরকে। কিন্তু তিতির বুদ্ধি খাটিয়ে প্রত্যেকবার নিজেকে মালিনীর তৈরি করা সর্বনাশের জাল থেকে রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে তিতির পড়েছে এক চরম বিপদে যেখান থেকে বেরোনোর কোন উপায়ই দেখতে পাচ্ছেন না ভক্তরা।

সোমরাজ যে তুলির সন্তানের বাবা নন আর তুলিও যে কোনভাবেই গর্ভবতী নয় এই বিষয়টি প্রমাণ করতে উঠেপড়ে লেগেছে তিতির। সে মনে প্রাণে বিশ্বাস করে তার সোমরাজ বাবু কখনোই এমন নিম্নমানের একটি কাজ করতে পারে না। অন্যদিকে নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য মালিনী সোমরাজের গলায় ঝুলিয়ে দিতে চাইছে তুলিকে।

ধারাবাহিকের আগামী পর্বে দেখা যাবে সবটা প্রমাণ করার জন্য সেই ডাক্তারের চেম্বারে ছুটে আসে তিতির। সেখানে ঘাপটি মেরে লুকিয়ে থাকে মালিনী। তারপর তিতিরের মাথায় রড দিয়ে মা এবং তার উপর অনেক অত্যাচার করে সে। তিতিরের অবস্থা যখন খুবই খারাপ তখন মালিনী তিতির কে বলে, “আমি তোমাকে যে রেসটা দিয়েছিলাম সেটায় তুমি হেরে গিয়েছো, তুমি ভীষণ ক্লান্ত তোমার রেস্ট এর প্রয়োজন।” এই বলে তিতিরের মুখ চেপে ধরে তাকে শ্বাস রোধ করে মারার চেষ্টা করে মালিনী। তবে কি এবার মালিনীর হাতেই খুন হবে তিতির?

Back to top button